ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ০১/১২/২০২৩ ৫:২৭ পিএম

নরসিংদী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আহসানুল ইসলাম রিমনকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। আজ শুক্রবার দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হলের গেট থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।তার বিরুদ্ধে নরসিংদীতে নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ ও উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নরসিংদী-১ সদর আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী, বর্তমান সংসদ সদস্য মো. নজরুল ইসলাম, বীর প্রতিক একটি মতবিনিময় সভা করেন। নরসিংদী ক্লাবে করা গত বুধবারের ওই সভায় নরসিংদী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আহসানুল ইসলাম রিমন বক্তব্য দেন। এ সময় তিনি নৌকার বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া স্বতন্ত্র পেটানোর হুমকি দেন। তার ওই বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতিকে বলতে শোনা যায়, ‘কোনো স্বতন্ত্র-মতন্ত্র আমরা চিনি না, মাইরের ওপর কোনো ওষুধ নাই। ছাত্রলীগের কোনো পোলাপান স্বতন্ত্ররে মানতো না। স্বতন্ত্ররে কেমনে পিডাইতে হয়, হেই দেখাইছে। হেরে আমরা হেমনেই পিডামু। এই শহরে, এই সদরের কোনো এলাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থীদের কোনো জায়গা দেওয়া যাবে না। তারা নৌকার বিরোধী, মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী, তারা দেশ বিরোধী।’

এরপর নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে নরিসংদী নির্বাচনী কর্মকর্তা সহকারী রিটানিং অফিসার ওমর ফারুক বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় একটি মামলা করেন। একই সঙ্গে জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রিমনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়। নির্বাচনী আইন লঙ্ঘনের এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে কেন আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, জানতে চেয়েছে ওই আসনের নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি। বৃহস্পতিবার রাতে এই কারণ দর্শানোর নোটিশ দেন নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির সদস্য নরসিংদীর যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ নাহিদুর রহমান নাহিদ। নোটিশ পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে লিখিত জবাব দিতে বলা হয়।

এদিকে, গ্রেপ্তার হওয়ার আগে দেওয়া এক বক্তব্যে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নিজেকে আওয়ামী লীগের নিবেদিত প্রাণ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘ভ্যানগার্ড’ উল্লেখ করে বলেন, ‘দলীয় যারা নৌকার বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হবে, নৌকাকে ডোবাতে যারা অবস্থান নিবে, আমি মনে করি তারা আওয়ামী লীগের বিরোধী। মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা বিরোধী। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরোধী। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বিরুদ্ধে তারা অবস্থান করতেছে। আমি তাদের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিয়েছি। নৌকাকে বিজয়ী করতে যা যা করার দরকার তাই করব।’

ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা ড. বদিউল আলম বলেন, ‘আমরা অবাধ, সুষ্ঠু ও প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচন উপহার দিতে চাই। এতে কেউ বাধা প্রদান করলে বা নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ করলে আমরা কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেব।

পাঠকের মতামত

নির্দেশনা না মানলে হাসপাতালের নিবন্ধন বাতিল -স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিচালনায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হাসপাতাল ও ক্লিনিক শাখার ১০ দফা ...

বাংলাদেশ ঢাকায় আসছেন মার্কিন উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আফরিন আক্তার ঢাকা-ওয়াশিংটন সম্পর্ক এগিয়ে নেওয়ার বিষয়ে আলোচনার ...