প্রকাশিত: ১০/০৮/২০১৭ ৯:৪৪ পিএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ৩:২৪ পিএম

গাইবান্ধা : গাইবান্ধা সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) দেবাশিষ সাহার স্ত্রী লাবনি সাহা (৩০) আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে গাইবান্ধা শহরের অদুরে ট্রেনের নিচে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। সান্তাহার-লালমনিরহাট রেলরুটের গাইবান্ধা সদর উপজেলার রাধাকৃঞ্চপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।
গাইবান্ধার বোনারপাড়া রেলওয়ে থানা পুলিশ সূত্র জানায়, দেবাশিষ সাহার বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলা শহরের বৈরাগিপাড়া এলাকায়। তিনি ওই এলাকার নির্মলচন্দ্র সাহার ছেলে। গত মার্চ মাসে দেবাশিষ সাহার সঙ্গে একই জেলার ভুরুঙ্গামাড়ি উপজেলা শহরের গোবিন্দচন্দ্র সাহার মেয়ে লাবনি সাহার বিয়ে হয়। বিয়ের সময় নগদ ১২ লাখ টাকাসহ প্রায় ২০ লাখ টাকা যৌতুক হিসেবে দেওয়া হয়। চাকরির কারণে দেবাশিষ তার স্ত্রী লাবনিকে নিয়ে গাইবান্ধা জেলা শহরের পুরাতন হাসপাতাল লেনের ভাড়াবাসায় থাকতেন।
লাবনির বাবা গোবিন্দচন্দ্র সাহা আজ সন্ধ্যায় জানান, দেবাশিষ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তো। আমরা বিয়ের পর জানতে পারি রাজশাহীতে লেখাপড়া করার সময় সুইটি রানী বিশ্বাস নামে এক মেয়ে সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সুইটি রানী গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়নের জগদিশ চন্দ্রের মেয়ে। সুইটির সাথে পরকিয়া প্রেম নিয়ে বিয়ের পর থেকে দেবাশিষের সঙ্গে আমার মেয়ের দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। প্রায়ই তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটি ও তাকে মারধর করা হতো। আমার মেয়ে আমাকে প্রায়ই অভিযোগ দিত যে, দেবাশিষ ওই মেয়েটিকে দ্বিতীয় বিয়ে করতে লাবনির অনুমতি চায়। অনুমতি না দেয়ায় তাকে মারধর করা হয়। গত কয়েকদিন ধরে তার উপর নির্যাতন বেড়ে যায়। লাবনির বাবা আরও বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে মারধরের পর তাকে গাইবান্ধার ভাড়াবাসার ঘরে তালাবদ্ধ করে দেবাশিষ থানায় যান। পরে লাবনি মোবাইলে তার এক আত্মীয় ও স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় তালা খুলে বের হয়ে থানায় যান। সেখানে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এরপর লাবনি অভিমান করে গাইবান্ধা রেলস্টেশনের অদুরে রাধাকৃষ্ণ এলাকায় রেললাইনে যান। লাবনির বাবা গোবিন্দচন্দ্র সাহা অভিযোগ করেন, স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে আমার মেয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে। আমি এর বিচার চাই।
বোনারপাড়া রেলওয়ে থানা পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক নজরুল ইসলাম প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে লাবনি সাহা রেললাইনের পাশ দিয়ে হাটাহাটি করছিলেন। এসময় লালমনিরহাট থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেন গাইবান্ধা রেলস্টেশনের অদুরে রাধাকৃষ্ণ এলাকায় পৌঁছলে লাবনি সাহা রেললাইনের উপর লাফিয়ে পড়েন। এতে লাবনি সাহা খ-বিখ- হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। পরে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। এসময় আলামত হিসেবে লাবনির একটি এনড্রয়েড মোবাইল, একটি পার্টস, সোনার চেইন উদ্ধার করা হয়।
জানতে চাইলে গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান মো. শাহারিয়ার বলেন, লাবনি সাহা কেন কি কারণে আত্মহত্যা করেছেন তা জানা নেই। তবে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।
এসব বিষয়ে উপ-পরিদর্শক দেবাশিষ সাহার সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

শীর্ষনিউজ

পাঠকের মতামত

সেন্টমার্টিন পরিদর্শনে বিজিবি মহাপরিচালক পরিস্থিতি মোকাবিলায় তৎপর থাকার নির্দেশ

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্ত পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ সেন্টমার্টিন দ্বীপসহ দেশের দক্ষিণ-পূর্ব সীমান্ত পরিদর্শন করেছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ...

আক্রান্ত হলে পাল্টা জবাব দেবে বাংলাদেশ, আমরা প্রস্তুত আছি: কাদের

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে উত্তেজনা বিরাজ কয়েকদিন ধরে। সেন্টমার্টিনের অদূরেই অবস্থান করছে মিয়ানমারের একাধিক যুদ্ধজাহাজ। এছাড়া, টেকনাফ-সেন্টমার্টিন ...

বাংলাদেশি ট্রলারে গুলি, মিয়ানমারকে প্রতিবাদ জানাল বাংলাদেশ

টেকনাফ ও সেন্টমার্টিনের মধ্যে চলাচলকারী বাংলাদেশি ট্রলারকে লক্ষ্য করে থেকে গুলি চালানোর ঘটনায় মিয়ানমারকে প্রতিবাদ ...