ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ২৯/০৪/২০২৩ ৮:৪১ এএম

মিয়ানমারের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি মোকাবিলায় জান্তা সরকারের ওপর চাপ প্রয়োগ করতে জাপানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের এক বিশেষজ্ঞ। খবর এএফপি।

জাপানে ১০ দিনের সরকারি সফর শেষে বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) জাতিসংঘের বিশেষ র‍্যাপোটিয়ার টম অ্যান্ড্রুস মিয়ানমারের মানবাধিকার পরিস্থিতির বিষয়ে বলেন, মিয়ানমারের সংকটে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতিক্রিয়া ব্যর্থ হচ্ছে। আর এই ব্যর্থতার কারণে বহু মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে।

দেশটিতে চলমান এই সংকট নিরসনে জাপান সরকার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। টম অ্যান্ড্রুস বলেন, জাপানের নেতৃত্বে আবারও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় মিয়ানমারের পরিস্থিতি উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধ হবে।

২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি অং সান সুচির সরকারকে উৎখাত করে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখলে নেয় দেশটির সামরিক বাহিনী। অগণতান্ত্রিকভাবে ক্ষমতায় বসা জান্তা সরকারকে মেনে নেয়নি দেশটির সাধারণ মানুষ। বিভিন্ন রাজ্যে গড়ে ওঠে তীব্র প্রতিরোধ। গঠিত হয় বেশ কয়েকটি সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী। প্রায় প্রতিদিনই জান্তা সেনাদের সঙ্গে গোষ্ঠীগুলোর সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। প্রাণ হারাচ্ছেন বহু মানুষ।

জান্তা বাহিনীর দমন পীড়নের বিষয়ে শুরু থেকেই উদ্বেগ প্রকাশ করে আসছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। সহিংসহতা বন্ধে জান্তা সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হলেও কার্যত কোন সাড়া মেলেনি।

এবার মিয়ানমারের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেশটির জান্তা সরকারের ওপর চাপ প্রয়োগের জন্য জাপানের প্রতি আহ্বান জানান জাতিসংঘের এ বিশেষজ্ঞ।

তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, বিশ্বের কয়েকটি দেশ মিয়ানমারের জান্তা সরকারকে গোপনে অস্ত্র দেয়া অব্যাহত রেখেছে। যার কারণে সহিংসতা বন্ধে আহ্বান জানানো হলেও উল্টো নির্যাতন নিপীড়ন ও সংঘর্ষ বেড়েই চলেছে।

সহিংসতা নিয়ন্ত্রণে শুধু আহ্বান জানান নয় বরং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে দেশটির সামরিক সরকারের ওপর চাপ প্রয়োগ করতে হবে বলেও মনে করছেন বিশ্লেষকরা

পাঠকের মতামত

স্বাভাবিক পথে সেন্টমার্টিনে যাচ্ছে খাদ্যপণ্য, টেকনাফে ফিরছে যাত্রী

অবশেষে স্বাভাবিক হচ্ছে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে নৌযান চলাচল। দীর্ঘ ৩৩ দিন পর টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে যাতায়াত করছে ...