প্রকাশিত: ০৬/১২/২০১৬ ৭:৪৫ পিএম

নিউজ ডেস্ক::

চট্টগ্রামে তল্লাশির নামে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগে দুই পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।আজ মঙ্গলবার সকালে চান্দগাঁও থানার কাপ্তাই রাস্তার মাথা এলাকায় সাংবাদিক মোস্তফা ইউসুফকে ফাঁসানোর চেষ্টা করেন কনস্টেবল নাজমুল হাসান ও তন্ময়।

ইউসুফ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম চট্টগ্রাম অফিসে চাকরি করেন। এ ঘটনার পর তাঁর লিখিত অভিযোগের পর চান্দগাঁও থানার মোহরা পুলিশ বক্সে দায়িত্বরত কনস্টেবল নাজমুল হাসান ও তন্ময়কে প্রত্যাহার করা হয়।

মোস্তফা ইউসুফ বলেন, ‘বেলা ১১টার দিকে নিজ বাড়ি রাঙ্গুনিয়া থেকে লোকাল বাসে কর্মস্থলে আসার পথে কাপ্তাই রাস্তার মাথা এলাকায় মোহরা পুলিশ ফাঁড়ির একটি দল গাড়িতে তল্লাশি করতে ওঠে। এ সময় আমাকেসহ আরো কয়েকজনকে তল্লাশি করার পর কিছু না পেয়ে পুনরায় আমাকে তল্লাশি করেন কনস্টেবল নাজমুল।’

ইউসুফ বলেন, ‘পুলিশ সদস্যরা বাস থেকে নেমে যাওয়ার সময় আমি কী করি সেটা জানতে চান এবং নিজেকে চাকরিজীবী পরিচয় দেওয়ার পর কনস্টেবল নাজমুল ও তন্ময় আমার শার্ট ধরে টেনে গাড়ি থেকে নামিয়ে পুলিশ বক্সে নিয়ে যান। সেখানে একটি চেয়ারে বসলে আমাকে দাঁড় করিয়ে ভেতরে নিয়ে ইয়াবা উদ্ধারের জন্য এক্স-রে করানোর কথা বলেন তাঁরা। এ সময় সাংবাদিক পরিচয় পাওয়ার পর তাঁরা আমাকে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে বলে একটি সিএনজি অটোরিকশায় তুলে দিয়ে পাঠিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন।’

ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা ও হয়রানির বিষয়টি নিয়ে নগর পুলিশের উত্তর জোনের উপকমিশনার বরাবর লিখিত অভিযোগের পর দুই কনস্টেবলকে মোহরা পুলিশ বক্স থেকে প্রত্যাহার করা হয়।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পরপর বিষয়টি খতিয়ে দেখে চেকপোস্টে দায়িত্বরত কর্মকর্তাসহ সবার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সুত্র : এনটিভি

পাঠকের মতামত

রাঙ্গামাটিতে স্পিডবোটে সন্তান প্রসব, ১০ হাজার টাকা পুরস্কার ও আজীবন যাতায়াত ফ্রি

গত রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারী) কাপ্তাই হ্রদে স্পিডবোটে এক শিশুর জন্ম হয়েছে। এঘটনায় ওই মা-শিশুর আজীবন ...