প্রকাশিত: ২৬/১১/২০১৬ ৭:৩৫ পিএম

এম.বশিরুল আলম,লামাঃ

বান্দরবানের লামা  গজালিয়া ইউনিয়নের গৃহবধূ রেহেনা বেগমকে (২৫) বিষ প্রয়োগে হত্যার অভিযোগে চারজনকে আসামি করে মামলা হয়েছে। মৃত্যুর প্রায় তিন মাস পর এ মামলা করা হলো

মৃত রেহেনার বাবা নুর হোসেন বাদি হয়ে উপজেলার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শশুর পক্ষের লোকজনের বিরদ্ধে এই মামলা করেন। আসামিরা হলেন, গিয়াস উদ্দিন (২৫), আবুল কাসেম (৫৫), মহিউদ্দিন (২১) ও ফাতেমা বেগম টুনি (৪০)।

অভিযোগে জানা গেছে, চলতি বছরের ১৯ আগস্ট শুক্রবার বিকাল ৩টার থেকে ৫টার মধ্যে গৃহবধূ রেহেনার স্বামী, শুশুর, শাশুড়ি ও শুশুর বাড়ির লোকজন শারীরিক নির্যাতন শেষে মৃত্যু নিশ্চিত করতে জোরপূর্বক মুখে বিষ পান করিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহতের পিতা নুর হোসেন বাদি হয়ে লামা থানায় অপমৃত্যু মামলা করেন। পরে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ দাফন করা হয়।

অবশেষে গত বৃহস্পতিবার নিহতের পিতা চারজনকে আসামি করে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন। আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে লামা থানার অফিসার ইনচার্জকে নির্দেশ দিয়েছেন।

গৃহবধূ রেহানার বাবা নুর হোসেন অভিযোগ করে জানান, রেহেনার ঠোঁটে ও নাকে কাটা দাগ এবং মাথায় আঘাতের একাধিক চি‎হ্ন ছিল। কিন্তু তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. আজমগীর যথাযথভাবে সুরহাতাল রিপোর্ট তৈরি করেননি। পুলিশ আসামিদের সাথে আতাত করে পরিকল্পিতভাবে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেছেন। তবে তদন্ত কর্মকর্তা তার এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, যথাযথভাবেই গৃহবধূ রেহানার ময়নাতদন্তের প্রাথমিক সুরতহাল সম্পন্ন করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত

মিয়ানমারে সংঘাত / এপারে থামানো যাচ্ছে না নিত্যপণ্য, জ্বালানি ও ভোজ্যতেল পাচার

সমুদ্রপথে মিয়ানমারে প্রতিনিয়ত পাচার হচ্ছে জ্বালানি ও ভোজ্যতেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী। গ্রেফতার ও আইন শৃঙ্খলা ...