প্রকাশিত: ২৫/১১/২০১৬ ৭:২৩ এএম

রফিকুল ইসলাম :
মঙ্গলবার দিবাগত রাত ও বুধবার ভোরে উখিয়ার থাইংখালী ও বালুখালী এলাকা থেকে উখিয়া থানার পুলিশের অভিযানে আটক ৭১জন রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশকারীকে বুধবার রাতে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এদিকে সীমান্তের উত্তেজনাকর পরিস্থিতি ও রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের অবস্থা পর্যবেক্ষনের জন্য বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বা বিজিবি মহা পরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ আবুল হোসেন গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে সীমান্তের ঘুমধুম পয়েন্ট পরিদর্শন করেন।
উখিয়া থানা পুলিশের ওসি মোঃ আবুল খায়ের জানান পুলিশ কর্তৃক আটক ৭১জন রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশকারীদের বুধবার রাতে উখিয়ার বালুখালী বিজিবি বিওপি সদস্যদের মাধ্যমে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হয়েছে। সীমান্ত সংলগ্ন পালংখালী ইউপি চেয়ারম্যান গফুর উদ্দিন চৌধুরী জানান, উখিয়া থানার ওসি, আমার ইউনিয়নের অপর তিন জন সদস্যের উপস্থিতিতে বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বালুখালী বিওপি বিজিবির তত্তাবধানে আটক ৭১জন রোহিঙ্গাকে ধামনখালীর নাফ নদী দিয়ে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হয়েছে। বালুখালী বিওপি কমান্ডার সুবেদার সিরাজ উল্লেখিত রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোর কথা নিশ্চিত করেছেন। এদিকে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নেতৃত্বাধীন পরিচালিত শুদ্ধি অভিযানে মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের ঘটনা ও সীমান্ত পরিস্থিতি সরজমিনে পরিদর্শনের জন্য গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টার দিকে ঘুমধুম সীমান্তের জিরো পয়েন্ট পরির্দশনে আসেন। তিনি পরিদর্শনকালে সীমান্তে নিয়োজিত বিজিবির সদস্যদের কঠোর ভাবে দায়িত্বপালন পূর্বক রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ প্রতিহত করার নির্দেশ দেন বলে জানা গেছে। এসময় তিনি বিজিবি সদস্যদের মিয়ানমার বিজিপির সাথে সু-সম্পর্ক বজায় রেখে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেন। পরে তিনি ঘুমধুম বিওপিতে কিছুক্ষণ সময় অতিবাহিত করে গতকাল সন্ধার দিকে টেকনাফের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন বলে ঘুমধুম বিওপি কমান্ডার নায়েক সুবেদার সাইফুল ইসলাম জানান। এ সময় তার সাথে বিজিবির উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে।

পাঠকের মতামত

বান্দরবানে কেএনএফের আস্তানায় যৌথ বাহিনীর অভিযান, নিহত ৩

বান্দরবানের রুমা উপজেলার রনিন পাড়ার কাছে ডেবাছড়া এলাকায় কেএনএফের একটি আস্তানায় সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে যৌথ বাহিনীর ...