উখিয়া নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৪/০৯/২০২২ ৭:৩৮ এএম

বান্দরবানের আলীকদমে ইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় বিজয়ীদের জন্য আনা ট্রফি (কাপ) ভেঙে ফেলেছেন আলীকদম উপজেলা নির্বাহী অফিসার মেহরুবা ইসলাম।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ২নং চৈক্ষং ইউনিয়নের রেপারপাড়া এলাকায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে আবাসিক স্বাধীন যুব সমাজের উদ্যোগে আন্ত ইউনিয়ন ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় আবাসিক জুনিয়র একাদশ বনাম রেপার পাড়া বাজার একাদশ দলের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- আলীকদম উপজেলা নির্বাহী অফিসার মেহরুবা ইসলাম। খেলায় সমাপনী বক্তব্যে এবং পুরস্কার বিতরণ করার এক পর্যায়ে ইউএনও জনসাধারনের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে ট্রফি (কাপ) ভেঙে ফেলেন।

এবিষয়ে জানতে চাই সমাপনী খেলার বিশেষ অতিথি উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান কফিল উদ্দিন বলেন, সমাপনী খেলার প্রথমে ২ দলে ৩৫ মিনিট করে ৭০ মিনিট খেলার পর কোনো দলের গোলা না হওয়ার কারণে রেফারীর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দুই দলকে টাইব্রেকার খেলার সিদ্ধান্ত দেয়। খেলায় ৪টা টাইব্রেকারে আবাসিক জুনিয়ার দলের ৩টা গোল হয় এবং টাইব্রেকার রেপার পাড়া একাদশের একটা গোল হয়।

খেলায় আবাসিক জুনিয়র একাদশ চ্যাম্পিয়ন এবং রেপার পাড়া একাদশ রানার্স আপ হয়। এটা নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার উপস্থিত জনসাধারনকে খেলার হার জিত থাকবে। এতে কারো মন খারাপের কারণ নেই। তিনি তখন জনসাধানের কাছে খেলার ফলাফলে সন্তুষ্ট কিনা জানতে চাইলে কয়েকজন খেলার ফলাফলে মানি না বলাতে ইউএনও ক্ষিপ্ত হয়ে খেলার চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্স আপ কাপ (ট্রফি) ভেঙে ফেলেন। এতে করে আমি পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে ইউএনওকে ঘটনাস্থল থেকে চলে যেতে অনুরোধ করি। পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে সব সমাধান দিয়ে আমি চলে আসছি। বিষয়টা খুব দুঃখজনক।

এই বিষয়ে রেপার পাড়া এলাকা যুবক ইমরুল কাইয়েস জানান, বিষয়টা খুব খারাপ হয়েছে। আমরা যুব সমাজকে ক্রীড়া মুখি করার জন্য খেলাধুলার ব্যবস্থা করেছি। কিন্তু তিনি একজন উপজেলা প্রশাসনের প্রধান হয়ে আমাদের খেলার এতো সুন্দর পরিবেশটা নষ্ট করে মোটেও ভালো করেন নি।

এবিষয়ে জানতে আলীকদম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সরকারি নম্বরে বার বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও সংযোগ স্থাপন করা সম্ভব হয়নি।

পাঠকের মতামত