উখিয়া নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১/০৯/২০২২ ২:৩৯ পিএম , আপডেট: ০১/০৯/২০২২ ৩:৫২ পিএম

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বলেন, আমরা মিয়ানমারকে সতর্ক করেছি। তারপরও একটি এসট্রে এসে বাংলাদেশে পরেছে। আমরা আবারো কথা বলেছি, তারা আরো সতর্ক থাকবে বলে আমাদেরকে জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট হলে জাপানিজ স্টাডিজ আয়োজিত এক শোক ও স্মরণ সভার অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বান্দরবানের তুমব্রু সীমান্ত প্রথমে মিয়ানমারের মর্টারশেল ও পরে এস্ট্রে এসে পরা প্রসঙ্গে এ কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রীর স্মৃতিচারণ করে বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ছিলেন অন্যতম। তার মৃত্যুতে বাংলাদেশসহ পুরো বিশ্বই শোকাহত।

এসময় তিনি বলেন, ২০১৪ সালে শিনজো আবের বাংলাদেশ সফর ছিলো এদেশের অবকাঠামোগত উন্নয়নের শুরু। তার মৃত্যুতে বাংলাদেশ তার কাছের বন্ধুকে হারিয়েছে। তার মৃত্যুতে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ।

জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বলেন, শিনোজো আবে অসাধারণ একজন নেতা ছিলেন। পুরো বিশ্বেই তার নেতৃত্বগুণের প্রকাশ ঘটেছে। তার মৃত্যুতে অন্যান্য বিশ্বের মতো বাংলাদেশও শোকাহত। এই নেতার স্মরণ ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানসহ রাষ্ট্রীয়ভাবে তার মৃত্যুতে শোক পালন করেছে বাংলাদেশ। আমরা কৃতজ্ঞ। বাংলাদেশ সরকারের এই কার্যক্রম আমাদের মনে থাকবে।

পাঠকের মতামত

ঘটনাপ্রবাহঃ সীমান্ত

সমুদ্রপথে সেনা ও সীমান্তরক্ষীদের ফিরিয়ে নিতে চায় মিয়ানমার

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের সেনাবাহিনী, সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিজিপি), পুলিশ, ইমিগ্রেশনসহ বিভিন্ন সংস্থার সদস্যদের দেশটি নৌবাহিনীর ...