ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ২৫/০২/২০২৪ ৯:৩৪ এএম

কক্সবাজারের পেকুয়ার সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পূর্বিতা চাকমার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) করা অভিযোগের তদন্ত চলছে। পূর্বিতা বর্তমানে চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। অভিযোগ তদন্ত করতে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) তাপ্তি চাকমাকে।

অভিযোগকারী নাছির উদ্দিন বাদশা বলেন, পেকুয়ার সাবেক ইউএনও পূর্বিতা চাকমার অনিয়ম, দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার এবং স্বেচ্ছাচারিতা নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যানের ও মন্ত্রী পরিষদের সচিব বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলাম। গত ২৫ জানুয়ারি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) তাপ্তি চাকমা কার্যালয়ে শুনানি হয়েছে। শুনানিতে তদন্ত কর্মকর্তাকে পেকুয়ায় সরেজমিনে এসে তদন্ত করার আবেদন করেছি। আশা করি, তিনি সরেজমিনে এসে তদন্ত করবেন।

অভিযোগে বলা হয়, পূর্বিতা চাকমা দুই বছরের বেশি সময় পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এ সময়ে পেকুয়া শহীদ জিয়া ক্রীড়া কমপ্লেক্সের মাঠ বেসরকারি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে মাসিক ৩ লাখ টাকায় ভাড়া দিয়ে ২ বছরে ৭২ লাখ টাকা সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে আত্মসাত করেছেন। মুজিববর্ষের ঘর প্রকৃত গৃহহীনদের না দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে সমাজের বিত্তশালীদের দিয়েছেন। এতে মুজিববর্ষের ঘর পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়েছেন প্রকৃত গৃহহীনরা।

অভিযোগে আরও হয়, পূর্বিতা চাকমা ২০২১-২২ এবং ২০২৩ অর্থবছরের বরাদ্দের কোনো প্রকল্প বাস্তবায়ন করেননি। তথ্য অধিকার আইনে বরাদ্দের প্রকল্প বাস্তবায়নের তালিকা চাইলে আবেদনকারীকে ডেকে মামলা-হামলার ভয় দেখাতেন তিনি। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে আরও কয়েকটি অভিযোগ তোলা হয়।

এ ব্যাপারে ইউএনও পূর্বিতা চাকমা বলেন, ‘অভিযোগ তদন্তাধীন বিষয়। এ বিষয়ে তদন্তকারী কর্মকর্তার কাছে জিজ্ঞেসা করেন।’

তদন্ত কর্মকর্তা ও কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) তাপ্তি চাকমা বলেন, ‘এটা তদন্তের বিষয়। তদন্ত চলমান।

পাঠকের মতামত

মিয়ানমারে সংঘাত/টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে ঢুকল আরও ৯ বিজিপি সদস্য

মিয়ানমারের রাখাইনে সংঘাতময় পরিস্থিতিতে কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে মিয়ানমার সীমান্ত রক্ষী বাহিনী ...