প্রকাশিত: ২৪/০৯/২০১৬ ১:৫১ পিএম , আপডেট: ২৪/০৯/২০১৬ ১:৫২ পিএম

বেলাল আজাদ,আদালত প্রতিবেদক ::

কখনো মসজিদের মুয়াল্লিম, কখনো বর্মাইয়া হুজুর আবার কখনো অঢ়েল সম্পদশালী; এক এক সময়ে একেক বেশধারী প্রতারক, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভূক্ত মানবপাচারকারী ও ইয়াবা ব্যবসায়ী আব্দুর রহিম প্রকাশ দালাল রহিম আবারও আত্মগোপনে চলে গেছে। তার স্ত্রী মায়ানমারের নাগরিক সাজেদা বেগম প্রকাশ বর্মাইয়া খুকুমণি ইয়াবা ও আদম ব্যবসায় আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। দালাল রহিম ও তার স্ত্রী বর্মাইয়া খুকুমণির বিরুদ্ধে মানবপাচার, মাদকদ্রব্য, জাল-জালিয়াতি ও প্রতারণার অভিযোগে অর্ধ ডজন মামলা ওয়ারেন্ট আছে। সম্প্রতি দালাল রহিমের বিরুদ্ধে কক্সবাজার জেলা বিভাগ মানবপাচার প্রতিরোধ ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে কয়েকটি মামলায় আদালতে চার্জসীট দাখিল ও একাধিক আলোচিত মামলায় ওয়ারেন্ট হওয়ায় এবং বিদেশ পাঠানোর আশ্বাসে প্রতারিত লোকজনের খোঁজের মূখে দালাল রহিম আত্মগোপনে চলে যায়। আলোচিত দালাল রহিম রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের দারিয়ারদীঘি গ্রামের মৃত আব্দু ছমদের ছেলে। সে এলাকার লোকজনের সাথে নানা প্রতারণা ও অগণিত লোকজনকে মালয়েশিয়ায় পাচার করে হত্যা, গুম ও নির্যাতনের অভিযোগে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে এলাকা ছাড়া হয়ে কক্সবাজার শহরের বাদশা ঘোনায় বসবাস করে আসছিল। দালাল রহিমের ও তার স্ত্রী বর্মাইয়া খুকুমণির বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানার মামলা নং-১০, তাং-০৫/০৯/২০১৫ইং জি.আর-৭৮৮/২০১৫ইং, কক্সবাজার সদর মডেল থানার মামলা নং-১১, তাং-০৩/০৪/২০১৫ই জি.আর-৩১৩/২০১৫ইং, টেকনাফ মডেল থানার মামলা নং-৩২, তাং-২২/০১/২০১৫ইং জি.আর-৩৩৯/২০১৫ইং, উখিয়া থানার মামলা নং-২৫, তাং-২৩/০৩/২০১৫ইং জি.আর-৯৩/২০১৫ইং, চট্টগ্রাম সিএমপি পতেঙ্গা থানার মামলা নং-১৯, তাং-১৯/১১/২০১৪ইং জি.আর-৯৯৮/২০১৪ইং, সি.আর-৪০৭/২০১২, সি.আর-৭৯৭/২০১৫ইং ও সি.পি-৫৪৯/২০১৬ইং সহ দেশের বিভিন্ন থানায় ও আদালতে এক ডজন মামলা ছাড়াও দেশের বাইরে মালয়েশিয়া-থাইল্যান্ডে বিভিন্ন লোমহর্ষক অপরাধের অভিযোগ রয়েছে। দালাল রহিম গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়ে দীর্ঘ ৬ মাস কারাভোগের পরে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে জামিনে মুক্তি পেয়ে গত রমজান মাসে মালয়েশিয়ায় পালিয়ে গিয়ে আবার ফিরে এসে নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ে। দালাল রহিমের বিরুদ্ধে দায়ের ও চার্জসীট হওয়া দু’টি মানবপাচার প্রতিরোধ আইনের মামলার বাদী কক্সবাজার গোয়েন্দা পুলিশের এস.আই. মোঃ বিল্লাল হোসেন জানান, দালাল রহিমকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

পাঠকের মতামত

ডেসটিনির পরিচালনা বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার প্রশান্ত

হাইকোর্টের নির্দেশে ডেসটিনি-২০০০ এর পরিচালনা বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান হয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার প্রশান্ত ভূষণ ...

বান্দরবানে কেএনএফের আস্তানায় যৌথ বাহিনীর অভিযান, নিহত ৩

বান্দরবানের রুমা উপজেলার রনিন পাড়ার কাছে ডেবাছড়া এলাকায় কেএনএফের একটি আস্তানায় সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে যৌথ বাহিনীর ...