প্রকাশিত: ২৫/০২/২০১৭ ১০:০১ পিএম

শরীয়তপুর সদর উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার রাতের এ ঘটনায় আজ শনিবার সকালে মামলা হয়েছে। পুলিশ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করেছে।

বিকেলে পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. খলিলুর রহমান জানান, উপজেলার বগাদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আটক শহীদুল ইসলাম বেপারী ওই গ্রামেরই বাসিন্দা। মামলার অন্য আসামিদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। নির্যাতিত ছাত্রী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলার বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, মেয়েটি স্থানীয় একটি স্কুলে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে। গতকাল শুক্রবার রাত ৯টায় পড়াশোনা শেষ করে সে পাশের চাচার ঘরে ঘুমাতে যায়। রাতের কোনো একসময় ঘরের দরজার ছিটকানি খুলে কয়েক যুবক মেয়েটিকে বাইরে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে তাঁকে বাড়ির পাশের একটি ক্ষেতে ফেলে রেখে যায়।

পরে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ মেয়েটিকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলায় আসামি করা হয়েছে- শহীদুল ইসলাম বেপারী, ইয়াসিন খাঁ, পারভেজ মুন্সী ও ইকবাল হোসেনকে।

পাঠকের মতামত

মিয়ানমারে সংঘাত/টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে ঢুকল আরও ৯ বিজিপি সদস্য

মিয়ানমারের রাখাইনে সংঘাতময় পরিস্থিতিতে কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে মিয়ানমার সীমান্ত রক্ষী বাহিনী ...