প্রকাশিত: ১০/০৯/২০১৬ ১২:৫৫ পিএম

chakaria-pic-10-09-16এ.এম হোবাইব সজীব, চকরিয়া:

জেলার ব্যস্ততম বানিজ্যিক এলাকা ও উপকূলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বড় বাজার চকরিয়া উপজেলার বদরখালী বাজার। এ বাজারে পাশ্বর্তী মহেশখালী, উপদ্বীপ-মাতারবাড়ী ও ধলঘাট, পেকুয়া ও কুতুবদিয়ার হাজার হাজার ব্যাবসায়ী প্রতিনিয়ত ব্যবসা করে আসছে। আর এ বাজারেই পবিত্র কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে গরুর বাজার নামে গলাকাটা বাণিজ্য করে যাচ্ছে একটি প্রভাবশালী মহল । গরু বিক্রি হউক আর না হউক প্রবেশ ফিঃ ১০০ ( একশত) টাকা, আর বিক্রি করলে হাঁিছলের নামে ২৫০ থেকে ৪০০ টাকা পর্যন্ত আদায় করছে বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগিরা। বাজার ডাককারী দাপটু নাজিম উদ্দিন অবৈধভাবে গরুর বাজারের নামে আলাদা এ ধরনের চাঁদাবাজি করে যাচ্ছে এমন অভিযোগ ব্যবসায়ীদের।  অপরদিকে বাজারের প্রধান সড়কে দুই পাশে অবৈধভাবে দখল করে নিয়েছে বাজার ইজাদারসহ তার সহযোগীরা। গতকাল যার কারনে সড়কে তীব্রজানজট সৃষ্টি হয়েছে।

অথচ আলাদা গরুর বাজার নামে বদরখালী বাজারে কোন ধরনের বাজার ডাক হয়নি। এ বিষয়ে বদরখালী বাজার ডাককারী নাজিম উদ্দিনের সাথে ০১৮৮১৬০২৬৫৬ মুঠোফোনে কল করা হলে তিনি, সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে গরুর বাজারের কথা বলতেই ফোন কেটে দেয়।

তারা অবৈধভাবে একটি গরু থেকে দুবার কিভাবে চাঁদাবাজি করছে এমন বিষয়ে জানতে চাইলে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহেদুল ইসলাম বলেন, এ ধরনের গরু থেকে বদরখালী বাজারে দুইবার টোল আদায় করলে অবৈধ। এটা খতিয়ে দেখা হবে বলে জানান এ কর্মকর্তা।

পাঠকের মতামত

সীমান্তে পরিবর্তন হতে পারে এসএসসির পরীক্ষাকেন্দ্র

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে চলমান সংঘাতকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি বিবেচনায় বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় অবস্থিত উখিয়া উপজেলার নিকটবর্তী ...