প্রকাশিত: ১৩/০৫/২০১৭ ৭:৫৮ এএম , আপডেট: ১৩/০৫/২০১৭ ১০:০৪ এএম

শফিক আজাদ,উখিয়া নিউজ ডটকম::
বিয়েই কলাপ খুললো হতভাগ্য গনির,ইউএনও ও এসিল্যন্ডের বদান্যতায় পেল ভুমি ও ঘর পাওয়ার আশ্বাস। আব্দুল গনি (২০) পিতা মোসলেম উদ্দিন গ্রাম-উখিয়া সদর। দরিদ্র পরিবারে জন্ম তার । উখিয়ার সবাই জগতের গনি নামই চেনে তাকে । গনির একটি গুণ সহজেই সবার মন জয় করার ক্ষমতা রাখে সে। পিতা-মাতা সহ ভুমিহীন হওয়ার কারনে প্রায় সবার প্রিয়মূখ গনি। ৫ বছর পুর্বে মমতাময়ী মা এবং ৪ মাস আগে পিতাকে হারিয়ে সর্বহারা গনি অপরের দয়ার উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ে। মাথা গোজার জায়গায়টিও ছিলনা তার। এতক্ষণ যার কথা বললাম সেই গণির শুভ বিয়ে হয়ে গেল শুক্রবার। সেই বিয়েতে ব্যাপক ধুমধাম মধ্যে না হলেও ছোঁয়া ছিল অনাবিল আনন্দের। ক্ষুদ্র সার্ধ্যের মধ্যে একাকিত্ব জীবনের অবসান ঘটিয়ে গনি পর্দাপন করলো দাম্পত্য জীবনে। বর্তমানে গনি উখিয়া ডাকঘরের রানার হিসেবে কর্মরত আছে। বেতন পায় আড়াই হাজার। এই বেতনেই সে পদাপর্ণ করলো যুগল জীবনে। ঘরে তুললো নববধু। নববধূ ফাতমা বেগমের বাপের বাড়ী নাইক্ষ্যংছড়ি উপজলার ঘুমধুম ইউনিয়নের জলপাইতলি ঘোনারপাড়া গ্রামে। স্বামী আব্দুল গনির মতো ৮ ম শ্রণী পর্যস্ত পড়ালখা করেছে ফাতেমা। দরিদ্র পিতা লোকমান হাকিম নম্র-ভদ্র হিসেবে গনির হাতে তার মেয়েকে তুলে দিতে পেরে মহা খুশি। তাই শুত্রুবার গনির বিয়েটি ছিল উখিয়ায় টক অব দ্যা টাউন। তার উপর এ দরিদ্র এতিমের বিয়েতে অতিথি হিসেবে সহধর্মিনী কক্সবাজার জেলা দায়রা জজ আদালতর সিনিয়র সহকারী জজ তাওহীদা আকতারকে সাথে নিয়ে এসে সবাইকে থাক লাগিয়ে দেন উখিয়ার ইউএনও মোঃ মাঈন উদ্দিন। এ সময় ইউএনওর সাথে আরো উপস্থিত ছিলেন উখিয়া সহকারি কমিশনার (ভূমি) নুরুদ্দীন মোহাম্মদ শিবলী নোমান। গরীবের ঘরে হাতির পারা!। বাক্যটি সম্পর্ক আগে ধারণা না থাকলেও শুক্রবার তা বাস্তবে দেখলেন উখিয়াবাসি। সাথে দেখলেন ইউএনও ও এসিল্যন্ডের আশান্বিত বাণী। বিয়ের অনুষ্টানে ইউএনও মাঈন উদ্দিন ও এসিল্যন্ড শিবলী নোমান ঘোষনা দেন ভুমিহীন এতিম গনিকে একটি খাস জমি বরাদ্ধ দেওয়া হবে,তার উপর করে দেওয়া হবে ভুমিহীনদের জন্য সরকারের দেওয়া একটি ঘর। ঘোষনাটি শুনে আবেগআপ্লুত হয়ে পড়ে গনি। ইউএনও এবং এসিল্যান্ডের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। এ প্রসংগে ইউএনও মাঈন উদ্দিন বলেন, আমি আজকে এই বিয়ে অনুষ্ঠানে উপস্হিত হতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। এ সমস্ত কাজ করে অনেক তৃপ্তি পাওয়া যায়। খাওয়া-দাওয়া বড় কথা নয়,একজন অবহলিত, বঞ্চিত মানুষের পাশে দাড়ানোই উত্তম কাজ। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উখিয়া ডিগ্রী কলেজের উপাধ্যক্ষ অাব্দুল হক, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা অাহসান উল্লাহ,উপজেলা ক্রীড়া সংস্হার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন শাহীন, উখিয়াস্থ দৈনিক মানবজমিনের স্টাফ রিপোর্টার সাংবাদিক সরওয়ার আলম শাহীন,হ্নীলার পোষ্ট মাষ্টার এস,এম জসিম উদ্দিন,একটি বাড়ী একটি খামারের উপজলা সমন্বয়কারী আব্দুল করিমসহ উপজেলার বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা।

পাঠকের মতামত

মিয়ানমারের আরেক গুরুত্বপূর্ণ শহর বিদ্রোহীদের দখলে

মিয়ানমারের বিদ্রোহীরা দেশটির আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ শহরের দখল নিয়েছে। মিয়ানমারের জান্তাবিরোধী সশস্ত্র রাজনৈতিক গোষ্ঠী তা’আং ...

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার ও দূরপাল্লার ট্রেন পটিয়া স্টেশনে যাত্রা বিরতির দাবি

চট্টগ্রাম–কক্সবাজার ও দূরপাল্লার ট্রেন পটিয়া স্টেশনে যাত্রা বিরতিসহ বিভিন্ন দাবিতে রেলমন্ত্রী জিল্লুল হাকিমকে স্মারকলিপি দিয়েছেন ...