প্রকাশিত: ০৭/০৬/২০১৭ ৪:০৯ পিএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ৪:৫৪ পিএম

ফরিদুল মোস্তফা খান, কক্সবাজার থেকে:: এমপি বদিকে নিয়ে দেশজুড়ে এতো আলোচনা, সমালোচনা ও বিতর্ক হলেও তার নির্বাচনি এলাকায় এর কোন বিরুপ প্রভাব নেই । দল মত নির্বিশেষে স্থানিয় সাধারণ ভোটাররা এখন ও তাকে পছন্দ করেন আগের মতই । তার প্রয়াত পিতা সাবেক উপজেলা চেয়াম্যান এজাহার মিঞা কোম্পানি ও বদির অকাতরে দান অনুদানের জন্যও দু উপজেলার আনাছে কানাছে তার ব্যাপক জন প্রিয়তা । তাই স্থানিয় বদির শত্রুরাও তাকে গরিবের বন্ধু বলে ডাকেন।এই অবস্থায় আগামী নির্বাচনে তাকে মনোনয়ন দেওয়া না দেওয়া নিয়ে কঠিন পরীক্ষায় আওয়ামী লীগ। এর প্রধান কারণ হল নির্বাচনী এলাকায় বদির জনপ্রিয়তা ও বিকল্পযোগ্য প্রার্থী না থাকা।কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) বদির আসনে সরকারি সংস্থার সম্ভাব্য প্রতিটি জরিপে নৌকার প্রার্থী হিসেবে এগিয়ে আছেন এই সংসদ সদস্য। কক্সবাজার-৪ আসনে সরকারি সংস্থার এক জরিপ সূত্রে জানা গেছে, বদি ছাড়াও এই আসনে নৌকার টিকিট চাইতে পারেন মোট ৫ জন। অন্যরা হলেন সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী, উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হামিদুল হক চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহ আলম চৌধুরী ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আলী আহম্মদ।জরিপে বলা হয়েছে, কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য বদিকে নৌকার মনোনয়ন দিলে তার জয়ের সম্ভাবনা ৬০ শতাংশ, সাবেক সংসদ অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীর ৪০ শতাংশ, হামিদুল হক চৌধুরী, শাহ আলম চৌধুরী ও আলী আহম্মদের নৌকা নিয়ে জয়ের সম্ভাবনা ৩০ শতাংশ। জরিপে আরো বলা হয়েছে, বদি ছাড়া এই আসনে আওয়ামী লীগের অন্য প্রার্থীর জয়ের সম্ভাবনা খুবই কম। মাঠ পর্যায়ের এই জরিপের ফলে কঠিন পরীক্ষায় আওয়ামী লীগ। ১১তম সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করলে নির্বাচনে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বীতা হবে। তখন আসন রক্ষার কথা বিবেচনা করলে কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনে বদিকে বাদ দেওয়া আওয়ামী লীগের জন্য বিরাট চ্যালেঞ্জ হবে। উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বলেছেন, দল নিশ্চয়ই নির্বাচনে জয়ী হতে পারবে এমন প্রার্থীকে মনোনয়ন দেবে। মনোনয়ন প্রদানের ক্ষেত্রে জরিপ করে দেখা উচিত কোন প্রার্থী সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। উখিয়া টেকনাফে বদিকে বাদ দিয়ে অন্য কাউকে মনোনয়ন দিলে জয় পেতে কষ্ট হবে।টেকনাফ থেকে নির্বাচিত কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব শফিক মিয়া জানিয়েছেন, বদিকে নিয়ে যেই অভিযোগগুলো আছে বাস্তবের সঙ্গে তার মিল নেই। সাধারণ ভোটারদের কাছে বদি সবচেয়ে জনপ্রিয়। তাই তিনি আশা করেন নৌকার জয় নিশ্চিত করতে বদিকেই ফের মনোনয়ন দেওয়া হবে।

পাঠকের মতামত

মিয়ানমারের আরেক গুরুত্বপূর্ণ শহর বিদ্রোহীদের দখলে

মিয়ানমারের বিদ্রোহীরা দেশটির আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ শহরের দখল নিয়েছে। মিয়ানমারের জান্তাবিরোধী সশস্ত্র রাজনৈতিক গোষ্ঠী তা’আং ...

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার ও দূরপাল্লার ট্রেন পটিয়া স্টেশনে যাত্রা বিরতির দাবি

চট্টগ্রাম–কক্সবাজার ও দূরপাল্লার ট্রেন পটিয়া স্টেশনে যাত্রা বিরতিসহ বিভিন্ন দাবিতে রেলমন্ত্রী জিল্লুল হাকিমকে স্মারকলিপি দিয়েছেন ...