প্রকাশিত: ১৪/০৯/২০১৬ ৭:০৯ এএম

a535261349baddf69851a61de75baeaa উখিয়া নিউজ ডটকম::

কক্সবাজার উখিয়া-টেকনাফ সড়কের উভয় পাশে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পয়র নিষ্কাশনের অবস্থা, সড়কের উপর হাট বাজার দোকান পাট গড়ে উঠায় জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারন করেছে। এসড়কে অন্ততঃ ১৫টি বাস ষ্টেশনে যথাযথ পয়ঃনিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায়, যত্রতত্র আবর্জনার স্তুপ সড়কের উপর বৃষ্টির পানি এ দুর্ভোগ অধিকতর বাড়িয়ে তোলে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের এ ব্যাপারে তেমন কোন উদ্যোগ না থাকায় লোকজনদের ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে। ৭৯ কি:মি: এ সড়কের কক্সবাজারের লিংরোড থেকে উখিয়া হয়ে টেকনাফ পর্যন্ত অন্তত ১৫টি বাস ষ্টেশন ও বাজার রয়েছে। এসব বাস ষ্টেশন ও বাজার অপরিস্কার অপরিচ্ছন্ন, ময়লা-আর্বজনা যত্রতত্র পড়ে থাকার পথচারীদের নানা ভাবে দুর্ভোগ পোহাতে হয়। বিশেষ করে এসব স্থানে সড়কের উভয় পাশে পয়ঃ নিস্কাশনের জন্য কোন ড্রেন না থাকায় বিশেষ করে বর্ষাকালে পথচারীদের চরম বেকাদায় পড়তে হয়। উখিয়ার সমাজ সেবক শেখ সাহাব উদ্দিন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যে যার মত করে সড়কের ফুটপাত জবর দখল করে দোকানঘর নির্মান, সম্প্রসারন করে চললেও এদিকে কারো নজর নেই। তিনি সহ আরো অনেকে জানান, ৯০ দশকে উখিয়া সদর, কোট বাজার, মরিচ্যা, বাস ষ্টেশন ও বাজারে উপজেলা পরিষদ সড়কের উভয় পাশে কোন কোন স্থানে এক পাশে পয়ঃ নিস্কাশনের জন্য ড্রেন নির্মান করেছিল। পরবর্তীতে মরিচ্যা, কোটবাজার সগ আরো কয়েকটি বাস ষ্টেশনে সড়ক ও জনপথ বিভাগ ড্রেন নির্মান করেছিল। কিন্তু অভিভাবক হীন এসব বাস ষ্টেশন ও বাজারের দোকানদাররা ফুটপাত জবর দখল করে দোকান ঘর নির্মান, সংস্কার ও সম্প্রসারণ করতে করতে উক্ত ড্রেন গুলো দখল করে তার উপর দোকান বানায়। এতে ফুটপাত দখল হয়ে যায়।

উখিয়া নাগরিক অধিকার বাস্তবায়ন পরিষদের সদস্য সচিব গফুর মিয়া চৌধুরী, উখিয়া কলেজ অধ্যাপক তহিদুল আলম তহিদ বলেন, মহাসড়কের উভয় পাশে যে হারে দোকান সম্প্রসারণ করা ও জবর দখল চলছে তাতে স্কুলের কোমল মতি শিশু, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসাগামী ছাত্র-ছাত্রী, পথচারী সহ সকল শ্রেণি পেশার লোকজনদের দুর্ভোগ মাথায় নিয়ে চলাচল করতে হয়। বিশেষ করে বর্ষাকালে বৃষ্টি পানি নিষ্কাশনের কোন সু-ব্যবস্থা না থাকায় সড়কের উপর দিয়ে পানি বাহিত হওয়ায় লোকজনের যেমন দুর্ভোগ বাড়ে, তেমনি প্রতি বছর সড়কের কার্পেটিং নষ্ট হয়ে সড়কে খানা খন্দকের সৃষ্টি হয়ে যানবাহন চলাচল ব্যাহত হয়। তারা বলেন হাট বাজার, বাস ষ্টেশন গুলোতে সুষ্টু পয়ঃ নিস্কাশন, ময়লা-আর্বজনা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট ইজারাদার, দোকানদার, ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, সড়ক ও জনপথ বিভাগের। কিন্তু জন স্বার্থকে গুরুত্ব দিতে সংশ্লিষ্টদের তেমন কোন উদ্যেগ ও ব্যবস্থা নিতে দেখা যায় না। কক্সবাজার সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী রানা প্রিয় বড়ুয়া বলেন, কক্সবাজার টেকনাফ সড়কের উখিয়া সহ গুরুত্বপূর্ণ বাস ষ্টেশন সমূহে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ পূর্বক যানবাহন ও জন চলাচলের পথ সুগম করার কাজ করা হচ্ছে। এসব উল্লেখযোগ্য বাস ষ্টেশনে মহাসড়কের উভয় পাশে টেকসই ড্রেন নির্মান পূর্বক পয়ঃ নিস্কাশনের প্রস্তাব ইতিমধ্যে মন্ত্রনালয়ে প্রেরন করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

পাঠকের মতামত