প্রকাশিত: ১৩/০৮/২০১৬ ৮:০৮ এএম , আপডেট: ১৩/০৮/২০১৬ ৯:২২ এএম

পোষ্ট-অফিসএম,এস রানা::
কর্মি আছে কর্ম নেই, পোষ্ট অফিসের সাইন বোর্ড আছে, পোষ্ট বক্স  নেই, এই নিয়ে চলছে রত্না পালং পোষ্ট অফিস। উখিয়ার রত্না পালং পোষ্ট অফিসে বর্তমান হযবরল অবস্হা বিরাজ করছে,  সেবা না পেয়ে গ্রাহকদের ভরসা  এখন কোরিয়ার সার্ভিস। উখিয়া উপজেলার রত্না পালং ইউনিয়নে অবস্হিত জনবহুল বানিজ্যিক ষ্টেশন কোটবাজার, এই ষ্টেশনে  অন্য ষ্টেশনের তুলনায় ব্যবসা বানিজ্য প্রচুর হওয়াতে সারা দেশে যোগাযোগ করা টি অতি জরুরী এছাড়াও এখানে রয়েছে সরকারি ও বেসরকারি ব্যাক, বীমা, এনজিও অফিস সহ বিভিন্ন প্রতিষ্টান, অশংখ্য ব্যবসা প্রতিষ্টান ও বানিজ্যলয়, যাদের প্রতিদিন প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট জরুরী কাগজ পত্র দেশের বিভিন্ন স্হানে পাঠাতে হয়, যার জন্য প্রয়োজন পোষ্ট অফিস। কোটবাজার ষ্টেশন কেন্দ্রীক প্রাচিনতম রত্না পালং পোষ্ট অফিসের সেবা পাওয়া থেকে বন্চিত স্হানীয় বাসিন্দারা।  সরেজমিনে দেখা যায় জনবহুল কোটবাজার ষ্টেশন হতে প্রায় এক কিলোমিটার দুরে রত্না পালং ঝাউতলা রোডের একটি বাড়ির সামনে পোষ্ট অফিসের একটি সাইন বোর্ড টাঙ্গানো সেখানে কোন লোকজন নেই, নেই কোন পোষ্ট বক্স । এই অফিসের পোষ্ট মান্টারের দায়িত্ব আছেন সাবেকুন্নাহার রোজি যিনি মরহুম পিতার পরিবর্তে দায়িত্ব পেয়েছেন এবং বসবাস করে কক্সবাজার শহরে জানা গেছে ব্যক্তিগত কোন বিশেষ প্রয়োজন না পড়লে তিনি পোষ্ট অফিসে
আসে না,  চিঠি নিয়ে আসার দায়িত্বে বেলাল নামক এক ব্যক্তি পোষ্ট পিওনের দায়িত্বে রয়েছে তাতু বড়ুয়া, তারা সবায় নাম মাত্র দায়িত্ব পালন করে প্রতি মাসে বেতন সহ সরকারী বিভিন্ন সুবিধা ভোগ করে আসলেও এলাকাবাসী রয়েছে দেশে নাগরিক অধিকার থেকে বন্চিত।  কেউর যদি চিঠি পোষ্ট করার প্রয়োজন পড়ে তাহলে প্রেরক কে ৩০/৪০ টাকা খরচ করে যেতে হয় উখিয়া সদর পোষ্ট অফিসে কারন রত্না পালং পোষ্ট অফিসের পোষ্ট  বক্স  নেই প্রায় ৬ বছর।  পিওন তাতু বড়ুয়ার দাবী দীর্ঘ ৫/৬ বছর পোষ্ট বক্স  না থাকলেও উপর মহল কে জানানো হয়েছে তাছাড়াও এলাকাবাসী অথবা কোট প্রতিষ্টানের জরুরী কাগজ পত্র এ অফিসে আসলেও তা প্রাপকের কাছে নির্দিষ্ট সময়ে পৌছে না বলে অনেক গ্রাহক অভিযোগ করে ক্ষোভের সহিত জানান। রুপালী ব্যাংক লিঃ কোটবাজার শাখার অফিসার দেলোয়ার হোসেন জানান, তাদের ব্যাংক এর একটি গুরুত্বপুর্ন চিঠি তাদের কাছে পৌছে ২৮ দিন পর যার কারনে অফিস কে অনেক সমস্যার সম্মুখিন হতে হয়েছে। শুধু রত্না পালং নয় উখিয়া সদর পোষ্ট অফিস ছাড়া ইউনিয়ন ভিত্তিক  হলদিয়ার মরিচ্যা পোষ্ট অফিস,  জালিয়া পালংয়ের ইনানী পোষ্ট অফিস,  পালং খালীর বালুখালীর পোষ্ট অফিসের ও চলছে হযবরল অবস্হা  এব্যাপারে হেল্প কক্সবাজারের নির্বাহী পরিচালক আবুল কাশেম এম এ, বলেন পোষ্ট অফিস হচ্ছে সরকারেরর তার ও টেলি যোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের একটি অতি গুরুত্বপুর্ন মাধ্যম যা দিয়ে দেশের সাধারন নাগরিক গন দেশ বিদেশে প্রয়োজনীয় যোগাযোগ করে থাকে এমন একটি বিষয়ে নজরদারী না করা অর্তান্ত দুঃখ্যজনক, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও উপজেলা প্রশাসন কে ব্যাবস্হা গ্রহন করার জন্য জোর দাবী জানাচ্ছি। যাতে দেশের জনগন তাদের প্রাপ নাগরিক সুবিধা থেকে বন্চিত না হয়। পাশা-পাশি  সরেজমিনে তদন্ত পুর্বক দায়িত্ব অবহেলা কারী ব্যক্তিদের বিরুদ্বে যথাযত শস্তি প্রদান করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

পাঠকের মতামত