প্রকাশিত: ২৪/০৩/২০১৮ ৪:০০ পিএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ৫:০৪ এএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : আকাশে ওড়ার ১৫ মিনিট পর মালয়েশিয়াগামী ইউএস-বাংলার একটি ফ্লাইট শাহজালাল বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করে। এরপর পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে দুপুরে আবার যাত্রা করেছে বিমানটি।

ইউএস বাংলার মহাব্যবস্থাপক কামরুল ইসলাম এ বিষয়ে বলেছেন, বিমানটি উড্ডয়নের ১৫ মিনিট পর মনিটরে একটি সতকর্তামূলক সাইন দেখতে পান পাইলট। কিছুক্ষণ পর সেটি আবার চলে যায়। তবে পাইলট তখনো যেহেতু ঢাকার আকাশেই ছিলেন তাই যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে কোনো ঝুঁকি না নিয়ে আবার শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করেন।

বোয়িং ৭৩৭-৮০০ মডেলের বিএস-৩১৫ উড়োজাহাজটিতে ১৬৪ জন যাত্রী ছিলেন। পরে সমস্যার সমাধান করে সিভিল এভিয়েশনের অনুমতি নিয়ে দুপুরে ফ্লাইটটি আবার রওনা দিয়েছে।

এদিকে, হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা রেজাউল করিম জানিয়েছেন, বিমানবন্দর থেকে মালয়েশিয়ার উদ্দেশে উড্ডয়নের ১৫ মিনিটের মধ্যে ঢাকায় জরুরি অবতরণ করতে হয়েছে উড়োজাহাজটিকে। তবে মারাত্মক কোনো সমস্যা না পাওয়ায় চেক-আপ শেষে সিভিল এভিয়েশনের অনুমতিসাপেক্ষে এটিকে আবার উড্ডয়নের অনুমতি দেওয়া হয়।

এর আগে ২০ মার্চ ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সৈয়দপুরের উদ্দেশে উড্ডয়নের ১৮ মিনিটের মধ্যে আবারো ঢাকায় জরুরি অবতরণ করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি উড়োজাহাজ।

এ ছাড়া ১২ মার্চ ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়া ইউএস-বাংলার একটি উড়োজাহাজ নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরণ করতে গিয়ে বিধ্বস্ত হয়। এতে প্রাণ যায় ৫১ যাত্রীর। এটি বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বিমান দুর্ঘটনা।

পাঠকের মতামত

‘বাংলাদেশ-মিয়ানমার রাজি থাকা সত্ত্বেও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন না হওয়ার কারণ খুঁজতে হবে’

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ...