ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ০১/০৪/২০২৪ ৯:৫৮ এএম

রমজানে দুঃসংবাদ দিয়েছে সৌদি আরব। দেশটি জানিয়েছে, নেতিবাচক আচরণ করায় রমজানে পবিত্র কাবা থেকে এখন পর্যন্ত ৪ হাজার মুসল্লিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রোববার (৩১ মার্চ) গালফ নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদেনে বলা হয়েছে, কেবল মুসল্লিদের গ্রেপ্তার নয়, ওমরাহর ভুয়া অফার দিয়ে বিদেশিদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে ৩৫টি প্রতারক প্রতিষ্ঠানকে শনাক্ত করা হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানকে বন্ধও করে দিয়েছে দেশটির সরকার।

রমজানে মুসল্লিদের নিরাপত্তা ও ইবাদতের পরিবেশ নির্বিঘ্ন করতে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে সৌদি আরব। এরই অংশ হিসেবে এসব মুসল্লিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রমজান মাসে পবিত্র ওমরাহ পালনে ইসলামে বিশেষ মর্যাদা রয়েছে। ফলে বছরের এ সময়ে মুসল্লিদের আনাগোনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এ ভিড় সামাল দিতে নানা পদক্ষেপের কথাও জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

পবিত্র রমজান মাসকে ওমরাহর পিক সিজন ধরা হয়। এ সময়ে সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় বেশকিছু নির্দেশনা জারি করেছে। নির্দেশনায় মুসল্লিদের যেসব হোটেলে নামাজের ব্যবস্থা রয়েছে সেখানে নামাজ পড়তে বলা হয়েছে।

এর আগে সৌদি জেনারেল অথরিটি জানিয়েছিল, রমজানের প্রথম ১০ দিনে এক কোটির বেশি মুসল্লি মসজিদে নববীতে নামাজ আদায় করেছেন। সবার মসজিদে আগমন সহজ এবং মুসল্লিরা যেন সুখকর অভিজ্ঞতা নিয়ে ফিরে যেতে পারেন সেটা নিশ্চিত করতে উন্নতমানের সেবা দেওয়া হয়েছে।

সৌদি কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী, রমজানের প্রথম ১০ দিনে মোট ৯৮ লাখ ১৮ হাজার ৪৭৪ জন মুসল্লি মসজিদে নববীতে নামাজ আদায় করেছেন। হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর পবিত্র রওজা মোবারক জিয়ারত করেছেন আরও ৭ লাখ ৩৯ হাজার ৭০২ জন ধর্মপ্রাণ মানুষ।

পাঠকের মতামত

ইরানের ভয়ে তটস্থ ইসরায়েল!

ইসরায়েলে বড় ধরনের ইরানি ক্ষেপণাস্ত্র বা ড্রোন হামলা আসন্ন বলে মনে করছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি ...