প্রকাশিত: ০৩/০৯/২০১৬ ৮:১৪ এএম

mir-qasem-pic_120024-642x336_130663_130713_130725ঢাকা: মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর নির্বাহী পরিষদ সদস্য মীর কাসেম আলী তার শেষ ইচ্ছার কথা পরিবারকে জানিয়েছেন।

পরিবারের সদস্যদের ভাষ্য মতে, মীর কাসেম আলী তার জীবনের শেষ বেলায় নিজের ছেলে ব্যারিস্টার আহমেদ বিন কাসেমের মুখ দেখতে চান। এছাড়া তিনি মীরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তার পিতার কবরের পাশে শায়িত হওয়ার বিষয়ে পরিবারের সদস্যদের ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।

শুক্রবার বিকেলে মীর কাসেমের স্ত্রী খোন্দকার আয়েশা খাতুন এ তথ্য জানান ।

তিনি বলেন, রিভিউ আবেদন খারিজ করে দিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দেয়া রায় প্রকাশিত হওয়ার পরে বুধবার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় মীর কাসেম আলী তার এসব ইচ্ছার কথা তাদের জানান।

তবে কারা কর্তৃপক্ষ এখনো তার কাছে শেষ ইচ্ছার বিষয়ে জানতে চায়নি বলেই জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, মীর কাসেম আলীর স্ত্রী খোন্দকার আয়েশা খাতুন দাবি করেছিলেন, ৯ আগস্ট সাদাপোশাকধারী লোকজন তাদের ছেলে ব্যারিস্টার আহমেদ বিন কাসেমকে বাসা থেকে ধরে নিয়ে গেছে। সেই ছেলে তার বাবার আইনজীবীও। এরপর থেকে তাদের ছেলে নিখোঁজ রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

এদিকে মীর কাসেম আলীর রিভিউ আবেদন খারিজ হওয়ার পর সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চাওয়ার পথ শুধু খোলা ছিল। গত বুধবার রাতে রিভিউ আবেদনের রায় কারাগারে পৌঁছানোর পর কারা কর্মকর্তারা মীর কাসেমের কাছে প্রাণভিক্ষার সিদ্ধান্তের বিষয়ে জানতে চাইলে মীর কাসেম জানিয়েছিলেন, ‘নিখোঁজ’ ছেলের সিদ্ধান্ত ছাড়া তিনি এ বিষয়ে কোনো মতামত দেবেন না।

3

পাঠকের মতামত

‘বাংলাদেশ-মিয়ানমার রাজি থাকা সত্ত্বেও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন না হওয়ার কারণ খুঁজতে হবে’

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ...