প্রকাশিত: ০৫/১২/২০১৬ ৮:৫৫ পিএম

বিশেষ প্রতিবেদক::

কক্সবাজার সদরের পোকখালী ইউনিয়ন পরিষদের দফাদার নুরুল হুদা জাল সনদে ৪ বছর ধরে সরকারী চাকরী করছে। এসএসসি/সমমান পাশ অথবা গ্রাম পুলিশ হিসাবে ১০ বছর চাকরি করার অভিজ্ঞতা দফাদার পদে নিয়োগের মাপকাঠি হলেও পোকখালী ইউনিয়ন পরিষদে এ নিয়ম মানা হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। এসএসসি’র জাল সনদ দিয়ে চাকরী নেয়ার বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সূত্র জানায়, ২০১২ সালে পোকখালী ইউনিয়ন পরিষদের তৎকালীন দফাদার আব্দুছমদ চাকরী থেকে অবসর গ্রহন করলে পদটি শুন্য হয়। তখন পরিষদে কর্মরত ৩ জন অভিজ্ঞ গ্রামপুলিশ দফাদার পদে নিয়োগের আবেদন করেন। কিন্তু তৎকালীন চেয়ারম্যান মৌলভী ফরিদুল আলম পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়ার কথা বলে তাদের আবেদন আমলে নেননি। কিন্তু পরে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি না দিয়েই নিয়মনীতি লঙ্ঘন করে একপ্রকার চুপিসারে শিক্ষাগত যোগ্যতা ও চাকরীর অভিজ্ঞতাহীন এক যুবককে দফাদার পদে নিয়োগ দেন। এ ক্ষেত্রে অনৈতিক লেনদেন হয়ে থাকতে পারে বলে গুজব উঠেছে। নিয়োগপ্রাপ্ত দফাদার নুরুল হুদা (৩০) মধ্যম পোকখালী ছমিউদ্দীন মিয়াজী পাড়ার মোহাম্মদ আলমের ছেলে। এর আগে সে দিনমজুরি করত বলে জানান এলাকাবাসী। তখন থেকে দফাদারের সরকারী চাকরী করছে সে। অভিযুক্ত নূরুল হুদা ফোন রিসিভ না করায় উপরোক্ত ব্যাপারে বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

পাঠকের মতামত

সিভিল সার্জন কার্যালয়ে স্বাস্থ্য সহকারী পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে গিয়ে আটক ১

চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ে স্বাস্থ্য সহকারী নিয়োগের লিখিত পরীক্ষায় প্রক্সি দিয়ে উত্তীর্ণ হলেও মৌখিকে ধরা ...

গহীন পাহাড়ে কঠোর প্রশিক্ষণ, যা বললেন কুকি চিনের আকিম বম

বান্দরবানে পাহাড়ি সশস্ত্র সংগঠন কুকি–চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) সামরিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নারী শাখার বান্দরবান সদর ও ...