ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ১৫/০২/২০২৪ ৯:০৭ এএম

বিদ্রোহী গ্রুপ আরাকান আর্মির সাঁড়াশি আক্রমণের মুখে প্রাণভয়ে পালিয়ে আসা ৩৩০ বর্ডার গার্ড পুলিশকে (বিজিপি) মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে উখিয়ার ইনানী উপকূলের নৌবাহিনীর জেটিঘাট এলাকা দিয়ে মিয়ানমার বিজিপির এসব সদস্যকে দেশটির কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

কক্সবাজারের টেকনাফের নীলা সরকার ও বান্দরবনের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে আশ্রয় নেওয়া ৩৩০ সীমান্তরক্ষীকে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ৬টি বাসে উখিয়ার ইনানী উপকূলের নৌবাহিনীর জেটিঘাট এলাকায় আনা হয়। পরে তাদের ‘কর্ণফুল‘ ও ‘বার আউলিয়া’ জাহাজে করে গভীর সাগর পথে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হবে।

এর আগে বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) জনসংযোগ কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম বলেন, বিজিবির তত্ত্বাবধানে কক্সবাজারের ইনানীর নৌ জেটিঘাট দিয়ে বিজিপি সদস্যসহ মিয়ানমারের নাগরিকদের সকাল ৮টায় দেশটির কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

এর আগে মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছিলেন, শিগগিরই নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হবে।

পাঠকের মতামত

মিয়ানমারে সংঘাত/টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে ঢুকল আরও ৯ বিজিপি সদস্য

মিয়ানমারের রাখাইনে সংঘাতময় পরিস্থিতিতে কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে মিয়ানমার সীমান্ত রক্ষী বাহিনী ...