প্রকাশিত: ২৩/০৬/২০১৭ ৮:৩৭ এএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ৫:৫২ পিএম

রাত জেগে ইবাদত-বন্দেগির মধ্য দিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে পবিত্র শবে কদর পালন করেছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। অনেকে শেষ রাতে কবরস্থানে গিয়ে প্রয়াত মা-বাবা, আত্মীয়স্বজনের কবর জিয়ারত করে তাঁদের আত্মার শান্তির জন্য দোয়া করেন।

শবে কদর মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে অত্যন্ত মহিমান্বিত একটি রাত। এই রাতের ইবাদত হাজার রাতের ইবাদতের চেয়ে উত্তম। এ রাতেই মুসলমানদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল-কোরআন নাজিল হয় এবং এ রাতকে কেন্দ্র করে কোরআন শরিফে ‘আল-কদর’ নামে একটি সূরা অবতীর্ণ করা হয়।

তাই শবে কদরের রাতটি মুসলমান সম্প্রদায় মহান আল্লাহপাকের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা ও পুণ্য লাভের আশায় নফল নামাজ আদায়, কোরআন তিলাওয়াত, জিকির-আজকার করে অতিবাহিত করেন।

এ উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ওয়াজ মাহফিল, দোয়া ও বিশেষ মোনাজাত হয়। রাতে মুসল্লিরা জিকির-আজকার করেন। ফজরের নামাজের পর বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মোকাররম মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা এহসানুল হক। মোনাজাতে তিনি দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা করে আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন।

এ ছাড়া তারাবির নামাজের পর সারা দেশে মসজিদে মসজিদে ওয়াজ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এতে বিভিন্ন শ্রেণী, পেশা ও বয়সের ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা অংশ নেন।

পাঠকের মতামত

‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনিতে মুখর হবে আরাফাতের ময়দান

ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরায়েলের নারকীয় হামলায় হাজার হাজার মানুষ নিহত হওয়ায় শোকাবহ পরস্থিতিতে পবিত্র হজের আনুষ্ঠানিকতা ...