প্রকাশিত: ০২/০৬/২০১৭ ৮:১৬ এএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ৫:১৪ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক::
আসন্ন ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে চলতি পবিত্র রমজান মাসে শহরে চিহ্নিত ছিনতাইকারীদের দৌরাত্ম দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ছিনতাইয়ের হাত রক্ষা পাচ্ছে এলাকার সাধারণ জনসাধারণ। রাত যতই গভীর হয় ছিনতাইকারীদের পদচারণা ততই বেড়ে চলে।
সুত্র জানা যায়, শহরের বাসটার্মিনাল সংলগ্ন নারিকেল বাগান হতে সিটি কলেজ গেইট পর্যন্ত প্রতিনিয়ত চলছে ছিনতাই ও লুটপাট। ওই ছিনতাইকারীদের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করতে চাইলে প্রাণে মেরে ফেলারও হুমকি দেয়। প্রাণের ভয়ে ছিনতাইয়ের শিকার হওয়া সাধারণ লোকজন তাদের বিরুদ্ধে কথা বলে ভয়ে তটস্থ হয়ে থাকে।
জানা যায়, শহরের পল্লানকাটা এলাকার দিল মোহাম্মদের পুত্র রফিক, মানিকের পুত্র সোহেল, কামালের পুত্র শফি উল্লাহ, হাবিবের পুত্র আবদুল্লাহ, নবী হোসেনের পুত্র রুবেল, হোসেন মাঝির পুত্র হাবিবসহ অন্যান্যরা মিলে নিত্য নৈমত্তিক এ ছিনতাই ও লুটপাটের মত খারাপ কাজ করে থাকে।
ভুক্তভোগি লোকজন জানান, বাস টার্মিনালের পার্শ্বে খামার বাড়ীর রেষ্ট হাউসের রাস্তার মুখে ওৎপেতে থাকা উল্লেখিত সন্ত্রাসীরা সাধারণ পথচারীর হাতে থাকা সব জিনিসপত্র অস্ত্রের মুখে ভয়ভীতি দেখিয়ে লুটপাট করে নিয়ে যায়। তাদের বিরুদ্ধে অসংখ্য চুরি ও ছিনতায়ের মামলা-মোকদ্দমাও রয়েছে বলে জানা যায়।
চলতি রমজান মাসে শহরে ছিনতাইয়ের কবল হতে রক্ষা পাওয়ার জন্য এবং সাধারণ মানুষের জান-মালের কোন ধরনের ক্ষতি করতে না পারে সেজন্য পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

পাঠকের মতামত

মিয়ানমারের আরেক গুরুত্বপূর্ণ শহর বিদ্রোহীদের দখলে

মিয়ানমারের বিদ্রোহীরা দেশটির আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ শহরের দখল নিয়েছে। মিয়ানমারের জান্তাবিরোধী সশস্ত্র রাজনৈতিক গোষ্ঠী তা’আং ...

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার ও দূরপাল্লার ট্রেন পটিয়া স্টেশনে যাত্রা বিরতির দাবি

চট্টগ্রাম–কক্সবাজার ও দূরপাল্লার ট্রেন পটিয়া স্টেশনে যাত্রা বিরতিসহ বিভিন্ন দাবিতে রেলমন্ত্রী জিল্লুল হাকিমকে স্মারকলিপি দিয়েছেন ...