ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ০১/১২/২০২৩ ৯:২৫ পিএম

সব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের (ওসি) পর এবার সব উপজেলা নির্বাহী অফিসারদেরও (ইউএনও) পর্যায়ক্রমে বদলি চেয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গত বৃহস্পতিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিবকে পাঠানো এক চিঠিতে ইসির এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের জন্য সকল উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে (ইউএনও) পর্যায়ক্রমে বদলি করার জন্য নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত প্রদান করেছেন। এ লক্ষ্যে প্রথম পর্যায়ে যে সকল ইউএনওদের বর্তমান কর্মস্থলে এক বছরের অধিক চাকুরীকাল সম্পন্ন হয়েছে তাদেরকে অন্য জেলায় বদলীর প্রস্তাব আগামী ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে কমিশনে প্রেরণ করা প্রয়োজন।

চিঠিতে আরও বলা হয়, বর্ণিতাবস্থায়, উল্লিখিত সিদ্ধান্ত অনুসারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশিত হয়ে বিনীত অনুরোধ করা হলো।

এর আগে কর্মস্থলে ৬ মাস হয়েছে, এমন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের (ওসি) পর্যায়ক্রমে বদলি করতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেয় ইসি। গত বৃহস্পতিবার কমিশনের উপসচিব মো. মিজানুর রহমানের সই করা চিঠিটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়।

থানায় ৬ মাস হয়েছে, এমন ওসিদের বদলি চায় ইসি থানায় ৬ মাস হয়েছে, এমন ওসিদের বদলি চায় ইসি
এতে বলা হয়েছে, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের জন্য সকল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের (ওসি) পর্যায়ক্রমে বদলী করার জন্য নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত প্রদান করেছেন। এ লক্ষ্যে প্রথম পর্যায়ে যে সকল থানার ওসিদের বর্তমান কর্মস্থলে ৬ মাসের অধিক চাকুরীকাল সম্পন্ন হয়েছে, তাদের অন্য জেলায় বা অন্যত্র বদলীর প্রস্তাব আগামী ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে নির্বাচন কমিশনে প্রেরণ করা প্রয়োজন।

চিঠিতে আরও বলা হয়, বর্ণিতাবস্থায়, উল্লিখিত সিদ্ধান্ত অনুসারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিনীত অনুরোধ করা হলো।

গত ১৫ নভেম্বর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। তফসিল অনুযায়ী ভোট হবে আগামী ৭ জানুয়ারি।

গত বৃহস্পতিবার শেষ হয়েছে নির্বাচনে অংশ নিতে চাওয়া প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিলের সময়। এখন চলছে মনোনয়ন যাচাই বাছাই। প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ১৭ ডিসেম্বর।

নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত ৪৪টি রাজনৈতিক দলের মধ্যে আওয়ামী লীগ–জাতীয় পার্টিসহ ৩০টি রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা এবার নির্বাচনে আসছেন। অন্যদিকে, বিএনপিসহ ১২টি রাজনৈতিক দলের কোনো প্রার্থী এই নির্বাচনে নেই।

নির্বাচন কমিশন (ইসি) জানিয়েছে, মঙ্গলবার মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন পর্যন্ত মোট ২ হাজার ৭১৩ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এবার নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীর সংখ্যা ১ হাজার ৯৬৬ জন। আর ৭৪৭ জন প্রার্থী নির্বাচন করবেন স্বতন্ত্র হিসেবে।

পাঠকের মতামত

সমুদ্রপথে সেনা ও সীমান্তরক্ষীদের ফিরিয়ে নিতে চায় মিয়ানমার

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের সেনাবাহিনী, সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিজিপি), পুলিশ, ইমিগ্রেশনসহ বিভিন্ন সংস্থার সদস্যদের দেশটি নৌবাহিনীর ...