হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় মিষ্টি আলু

মিষ্টি আলু শুধু খেতেই সুস্বাদু নয়, এতে রয়েছে নানা পুষ্টিগুণ। আমাদের শরীরে প্রতিদিন যে পরিমান ভিটামিন এ দরকার তার প্রায় সবটুকুই মিষ্টি আলুতে পাওয়া যায়।

মিষ্টি আলুতে প্রচুর পরিমানে আঁশ ও পটাশিয়াম আছে। সাধারণ আলুর চেয়ে এতে বেশি পরিমান প্রাকৃতিক চিনি রয়েছে। কিন্তু তা মোটেও ক্ষতিকর নয়। বরং মিষ্টি আলু ডায়বেটিস রোগীদের জন্য দারুন উপকারী। এটি রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। মিষ্টি আলুতে খুবই কম পরিমান ক্যালরি থাকে। এটি খেলে তাই ওজন বাড়ার সম্ভাবনা থাকে না।

মিষ্টি আলু উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে সাহায্য করে। এতে প্রচুর পরিমানে আঁশ থাকায় এটি কোষ্ঠকাঠিন্য রোধ করতে সহায়তা করে।

গবেষণায় দেখা গিয়েছে, মিষ্টি আলু স্থূলতার ঝুঁকি কমায়। এছাড়া এটি হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতেও সাহায্য করে। এটি শরীরে শক্তি জোগায়। কাজে-কর্মেও গতি আসে। এছাড়া মিষ্টি আলুতে প্রচুর পরিমানে বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি ৬ সহ শরীরের নানা প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান থাকে।

মিষ্টি আলুতে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে।এটি বাতের ব্যথা,হাড়ের ব্যথা,অ্যাজমা এবং ত্বক কুচকে যাওয়া রোধ করে। এটি স্তন ও ফুসফুসের ক্যানসার প্রতিরোধেও সাহায্য করে।

মিষ্টি আলুতে থাকা ভিটামিন এ দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। প্রতিদিন দুই-তিনটি মিষ্টি আলু খেলে বয়সজনিত দৃষ্টিশক্তি খারাপ হওয়ার ঝুঁকি কমে যায়।

সূত্র : মেডিকেল নিউজ টুডে