ছাত্রীটিকে তুলে নিয়ে লালন-পালন করতে চেয়েছিল মজনু!

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণে অভিযুক্ত মজনু আটক হওয়ার পর থেকে জানা যাচ্ছে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। ছাত্রীকে ধর্ষণ করার পর তাকে নিয়ে আরো বৃহত্তর পরিকল্পনা করেছিল মজনু। বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) পুলিশের ডিটেকটিভ ব্রাঞ্চের কাছে দেয়া মজনুর আংশিক জবানবন্দি থেকে এ খবর জানা যায়। মজনু বলেছে, সে ধর্ষণের পর ছাত্রীটিকে তুলে নিয়ে নিজের সাথে রেখে লালন-পালন করতে চেয়েছিল।

মজনু ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণের বিষয়ে ডিবিকে জানায়, রোববার কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে টার্গেট করার সময় তার পরিচয় সম্পর্কে কোনো ধারণা ছিল না তার। সে মনে করেছিল, বিকৃত স্বভাবে প্রায় নিয়মিত যেভাবে ‘শিকার’ ধরে থাকে রোববারের ঘটনাও তাই ছিল। এমনকি টার্গেট করা ওই তরুণীকে নিয়ে রেললাইনে ‘লালন-পালন’ করে সঙ্গে রাখবে এমন কথাও ভাবতে থাকে সে। রাত গভীর হলে ওই তরুণীকে রাস্তার ওপারে রেললাইনে নিয়ে যাওয়ার প্ল্যান ছিল তার।

এজন্য সে দীর্ঘ সময় তার পাশে বসে থাকে। তবে ওই ছাত্রী যখন বারবার বাধা দিচ্ছিল, তখন ঘাবড়ে যায় মজনু। একপর্যায়ে তার ভালো পোশাক-পরিচ্ছদ দেখে সে উপলব্ধি করে, ভুল টার্গেটে হাত দিয়েছে সে। পরিচয় নিশ্চিত হতে বারবার তাই মেয়েটির নাম-পরিচয় ও কোথায় পড়াশোনা করছে তা জানতে চেয়েছিল মজনু। সে ভুল করে ‘বড় কোনো মানুষ’কে টার্গেট করেছে, এটা বুঝতে পারে অবশেষে।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন