ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ১৩/০২/২০২৪ ১০:০২ এএম

চট্টগ্রামে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসারত মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি)‘র চার সদস্য ব্যতিত বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া বাকি ৩২৬ জন সদস্যের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে ফিঙ্গারপ্রিন্ট নিয়ে তালিকা তৈরি করেছে প্রশাসন। তাদেরকে মিয়ানমারের ফেরত পাঠানোর অংশ হিসেবে এই তালিকা তৈরি করা হয়েছে।

গত রবিবার থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত কক্সবাজার পাসপোর্ট কার্যালয়ের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সংগ্রহকারীরা দুটি দলে বিভক্ত হয়ে এই ফিঙ্গার প্রিন্ট সংগ্রহ করে। এদের মধ্যে একটি দল বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম উচ্চ বিদ্যালয়ে আশ্রিত ১৬০ জন বিজিপি সদস্যের এবং অপর দল কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলা উচ্চ বিদ্যালয়ে আশ্রিত ১৬৬ জন বিজিপি সদস্যের ফিঙ্গার প্রিন্ট সংগ্রহ করে। পরে দল দুটি তালিকা তৈরি বিজিবি ও জেলা প্রশাসনকে হস্তান্তর করে।
এবিষয়ে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ শাহীন ইমরান বলেন, আশ্রিত বিজিপি সদস্যদের ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে তাদের ফিঙ্গার প্রিন্ট সংগ্রহ করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত

মিয়ানমারে সংঘাত/টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে ঢুকল আরও ৯ বিজিপি সদস্য

মিয়ানমারের রাখাইনে সংঘাতময় পরিস্থিতিতে কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে মিয়ানমার সীমান্ত রক্ষী বাহিনী ...