প্রকাশিত: ১৫/০৪/২০১৭ ৭:১৬ পিএম

জসিম উদ্দিন টিপু, টেকনাফ::
টেকনাফের তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী হ্নীলার আনোয়ারের পশ্চিম সিকদারপাড়াস্থ ডিপোতে ইয়াবা গণণাকালে এবার ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৩হাজার পিচ ইয়াবাসহ মিয়ানমারের এক নারীকে হাতে নাতে আটক করেছেন। ১৫ এপ্রিল শনিবার বিকাল ৩টার দিকে কক্সবাজার গোয়েন্দা পুলিশের এস.আই মো: মুহসীন ভুইয়্যার নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হ্নীলার পশ্চিম সিকদারপাড়া এলাকার হাজ¦ী কালা মিয়া ওরফে কালু হাজ¦ীর পুত্র আনোয়ারের বাড়ীর ছাদে ইয়াবা গণণার সময় অভিযানটি পরিচালনা করা হয়। এসময় পরভীন আক্তার নামের মিয়ানমারের এক নারীকে হাতে নাতে আটক করেছেন পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি আগে থেকে টের পেয়ে বাড়ী মালিক আনোয়ার হোসেন, ভাই নুর হোসেন, কামাল হোসেন, জামাল হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, মো: হাসান, সাইফুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর আলম পালিয়ে গেছেন বলে জানাগেছে। স্থানীয়রা বলছেন, অভিযান চলাকালে পুলিশ ইয়াবা ডিপোর হিসাব রক্ষক ডন আনোয়ারের কনিষ্ট ভাই জাহাঙ্গীর আলমকে ধাওয়া করেও আটক করতে পারেনি। পাহাড়ী এলাকা হওয়ায় পিচ্ছি জাহাঙ্গীর পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে দ্রুত পশ্চিম দিকে পালিয়ে গেছেন বলে প্রতিবেশীরা জানায়। এদিকে অভিযান পরিচালনাকারী কক্সবাজার গোয়েন্দা পুলিশের উপ পুলিশ পরিদর্শক মো: মুহসীন ভুইয়্যা এই প্রতিবেদককে অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান এনে ইয়াবা ডন আনোয়ারের বাড়ীতে গণণার সংবাদের ভিত্তিতে অভিযানটি পরিচালনা করা হয়। এতে মিয়ানমারের এক নারীকে ইয়াবাসহ আটক করা সম্ভব হয়েছে। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ী মালিক আনোয়ার এবং তার সহোদররা পটাপট পালিয়ে যাওয়ায় তাদের আটক করা সম্ভব হয়নি। ধৃত মিয়ানমারের নারীকে মাদক এবং অবৈধ অনুপ্রবেশের অপরাধে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করে টেকনাফ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে জানিয়ে গোয়েন্দা পুলিশের এই কর্মকর্তা আরো জানান, বাড়ী মালিক এবং চালানের সাথে সম্পৃক্তদের পলাতক আসামী করার প্রক্রিয়া চলছে। ডিবি পুলিশের অভিযানের বিষয়ে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: মাঈন উদ্দিন খাঁনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমিতো একটু কক্সবাজার আছি। তবে তিনি হ্নীলার ইয়াবা ডিলার আনোয়ারের ডিপোতে গোয়েন্দা পুলিশ অভিযান চালিয়েছেন বলে জানান। প্রসঙ্গত: ১২ এপ্রিল বুধবার ভোর ৬টার দিকে জেলা গোয়ান্দো পুলিশের উপ পুলিশ পরিদর্শক ফারুকে নেতৃত্বে পুলিশ উপজেলার হ্নীলা বাস ষ্টেশনের নছীম মার্কেটস্থ কালু হাজ¦ীর পুত্র কামালের মালিকানাধীন আমানত টেলিকমের দোকানে অভিযান চালিয়ে ৪হাজার পিচ ইয়াবা বড়িসহ দুই দোকান কর্মচারীকে হাতে নাতে আটক করেছেন। হ্নীলার ইয়াবা পরিবার খ্যাত কালু হাজ¦ীর পরিবারের নারী-পুরুষ সকলে দিন দুপুরে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। প্রশাসনিক তৎপরতার মাঝেও দিন দুপুরে এদের ইয়াবা বেছা কেনার বিষয়টি অনেককে ভাবিয়ে তুলছেন। দিবারাত্রি পশ্চিম সিকদারপাড়াস্থ কালু হাজ¦ীর বাড়ীতে রীতিমত ইয়াবা বেছা কেনার হাট বসে। তাদের ইয়াবার হাটে ডিবি পুলিশের অভিযানকে এলাকাবাসী আন্তরিক সাধুবাদ জানিয়েছেন। তবে আনোয়ার এবং অপর সাত ভাইয়ের বিরুদ্ধে কঠোর আইনী ব্যবস্থার দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

পাঠকের মতামত

উখিয়ার বন কর্মকর্তা সাজ্জাদুজ্জামান হত্যা: পালিয়েও শেষ রক্ষা হলোনা ঘাতক বাপ্পীর!

উখিয়া রেঞ্জের দোছড়ি বিট কর্মকর্তা মো. সাজ্জাদুজ্জামান সজলকে সরকারি দায়িত্ব পালনকালে গত ৩১মার্চ রাত আনুমানিক ...

মুখোমুখি সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পেল কক্সবাজার এক্সপ্রেস ও পর্যটক এক্সপ্রেস

দুই ট্রেনচালকের সতর্কতায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে কক্সবাজার এক্সপ্রেস ও পর্যটক এক্সপ্রেস। স্টেশনমাস্টার ...

মিয়ানমারে বন্দি ১৪ বাংলাদেশি জেলে, ভিক্ষা করে চলছে মুবিনার সংসার!

কক্সবাজারের টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীর দ্বীপের জালিয়াপাড়া। নাফ নদী সংলগ্ন বেড়িবাঁধ এলাকার বাইরে অবস্থিত গ্রামটিতে ...

উখিয়া থেকে অপহৃত স্কুলছাত্রী চট্টগ্রামে উদ্ধার, অপহরণকারী গ্রেপ্তার

কক্সবাজারের উখিয়ায় অপহৃত স্কুলছাত্রীকে চট্টগ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এসময় অপহরণকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত ...