প্রকাশিত: ৩১/১০/২০১৬ ৬:৫১ এএম

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ::

সরকারী প্রাইমারী স্কুলে কর্মরত দপ্তরী জেএসসি পরিক্ষার্থী বিয়ে করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে ঘটেছে এঘটনা। এই বাল্য বিবাহের কারণে জেএসসি পরিক্ষার্থী এবারে পরিক্ষা দিতে পারছেনা বলে জানা গেছে।
সেন্টমার্টিনদ্বীপ বিএন ইসলামিক হাইস্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ উজ্জল ভৌমিক (০১৮১৮৭৬৫৪৮১) ৩০ অক্টোবর রাতে জানান সেন্টমার্টিনদ্বীপ কুনাপাড়ার বাসিন্দা মৃত মোঃ আবদুল্লাহ ও আমিনা খাতুনের মেয়ে আনোয়ারা আক্তার (১৪) সেন্টমার্টিনদ্বীপ বিএন ইসলামিক হাইস্কুল এন্ড কলেজের ৮ম শ্রেনীর নিয়মিত ছাত্রী হিসাবে এবারের জেএসসি পরিক্ষার্থী ছিল। গত কিছু দিন আগে থেকে হঠাৎ করে আনোয়ারা আক্তার স্কুলে অনুপস্থিত থাকে। খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন সেন্টমার্টিনদ্বীপ পশ্চিমপাড়ার বাসিন্দা মুখতার আহমদের পুত্র সেন্টমার্টিনদ্বীপ সরকারী প্রাইমারী স্কুলে কর্মরত দপ্তরী জয়নাল আবেদীন (১৯) এবারের জেএসসি পরিক্ষার্থী আনোয়ারা আক্তারকে নিয়ে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছেন। ৩০ অক্টোবর দ্বীপের সকল পরিক্ষার্থী সেন্টমার্টিন থেকে পরিক্ষায় অংশ নিতে টেকনাফ চলে গিয়েছেন। কিন্ত আনোয়ারা আক্তার উপস্থিত হননি।
সেন্টমার্টিনদ্বীপ বিএন ইসলামিক হাইস্কুল এন্ড কলেজ গভর্ণিং বডির সভাপতি ও সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ বলেন বিষয়টি শুনেছি। অভিভাবককে ডেকে অন্ততঃ পরিক্ষায় অংশ নিতে প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। উল্লেখ্য, সেন্টমার্টিনদ্বীপ বিএন ইসলামিক হাইস্কুল এন্ড কলেজ থেকে এবারের জেএসসি পরিক্ষার্থী সংখ্যা ৫৮ জন। তম্মধ্যে আলোচিত আনোয়ারা আক্তারসহ ছাত্রীর সংখ্যা ২৪ এবং ছাত্র ৩৪ জন। ৩০ অক্টোবর মোট ৫৪ জন পরিক্ষার্থী সেন্টমার্টিন থেকে পরিক্ষায় অংশ নিতে টেকনাফ পৌঁছেছেন। আনোয়ারা আক্তারসহ ২ জন ছাত্রী এবং ২ জন ছাত্র উপস্থিত হননি।

পাঠকের মতামত

মিয়ানমারে সংঘাত / এপারে থামানো যাচ্ছে না নিত্যপণ্য, জ্বালানি ও ভোজ্যতেল পাচার

সমুদ্রপথে মিয়ানমারে প্রতিনিয়ত পাচার হচ্ছে জ্বালানি ও ভোজ্যতেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী। গ্রেফতার ও আইন শৃঙ্খলা ...