ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ২০/০৪/২০২৪ ১২:৩৭ পিএম

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ
টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা ইবনে আব্বাস (রা.) আল-ইসলামিয়া মাদ্রাসা বোর্ড পরিক্ষায় এবারও চমক সৃষ্টি করে সফলতার ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রেখেছে। মাদ্রাসাটি ২০০৩ ইংরেজীতে প্রতিষ্টা লাভ করে প্রতিষ্টাতা পরিচালক আলহাজ্ব মাও. ক্বারী শাকের আহমদের অক্লান্ত পরিশ্রম, কর্মরত শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মচারীদের আন্তরিকতায় অত্যন্ত সুনামের সহিত লেখাপড়া চালিয়ে আসছে। এ মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন বোর্ড, সনদ, কেন্দ্রীয় ও প্রতিযোগিতামুলক বিভিন্ন পরিক্ষায় অংশ গ্রহণ করে অসাধারণ মেধার পরিচয় দিয়ে আসছে।
বাংলাদেশ তাহফীজুল কুরআন সংস্থা
পবিত্র কুরআন হেফজ সমাপ্তকারী ছাত্রদের নিয়ে অনুষ্টিত কেন্দ্রীয় পরিক্ষায় অংশ নিয়েছিল ২২ জন ছাত্র। এতে শতভাগ পাশসহ ৭ জন হাফেজ সম্মিলিত মেধা তালিকায় স্থান পেয়েছেন। তাঁরা হলেন হাফেজ নুরুল আবসার, হাফেজ মো. ইয়াসিন, হাফেজ সাজ্জাদ হোসাইন, হাফেজ ছৈয়দুল করিম, হাফেজ ওমর ফারুক, হাফেজ মো. জুনায়দ।
রাবেতা বোর্ড
শা’বান মাসে অনুষ্টিত নাহুমের রাবেতাতুল মাদারিস কেন্দ্রীয় পরিক্ষায় ২৮টি মাদ্রাসার ২৬৮ জন শিক্ষার্থী এতে অংশ নেন। এতে বোর্ড সেরা সম্মিলিত মেধা তালিকায় স্থান পাওয়া ২৭ জনের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকারী মো. শুয়াইবসহ ৮ জনই লেদা ইবনে আব্বাস (রা.) আল-ইসলামিয়ার ছাত্র। এরা হলেন প্রথম মো. শুয়াইব, ৫তম মো. শুয়াইব, ৬তম মো. সা’আদ, ৮তম হোবাইবুর রহমান, ৯তম নুর কায়সার, ১৩তম মো. আবু নঈম, ১৭তম মো. আসআদ, ১৯তম মো. আরমান। উক্ত জমাতে নাহুমের দায়িত্বশীল শিক্ষক ছিলেন মাও. মুফতী মো. ইসমাইল (০১৮৫৭৯১৬২৯৯)। তাঁর বাড়ি হোয়াইক্যং ইউনিয়নের মনিরঘোনা গ্রামে। ২০২৩ সালে ২৬টি মাদ্রাসার ২৬৭ জন শিক্ষার্থী এতে অংশ নিয়েছিল। এতে বোর্ড সেরা সম্মিলিত মেধা তালিকায় স্থান পাওয়া ৩৬ জনের মধ্যে ৯ জনই ছিল লেদা ইবনে আব্বাস (রা.) আল-ইসলামিয়ার ছাত্র। এরা হলেন ওমর হায়াত, মো. আরেফ, শাহাবুদ্দিন, মো. খুবাইব নুর, মো. খুবাইব, নাছির উদ্দিন, মো. আবদুল্লাহ, মো. হারেছ, মো. আজিজুল গফফার।
আঞ্জুমানে ইত্তেহাদুল মাদারিস
একই মাসে অনুষ্টিত হয়েছিল আঞ্জুমানে ইত্তেহাদুল মাদারিসের বহুল পরিচিত মরকজী পরিক্ষা। এতে জমাতে হাস্তমের সারা দেশের ইত্তেহাদভুক্ত কয়েক হাজার মাদ্রাসার অসংখ্য পরিক্ষার্থীদের মধ্যে সম্মিলিত মেধা তালিকায় স্থান পেয়েছে লেদা ইবনে আব্বাস মাদ্রাসার ৮ জন ছাত্র। এরা হলেন ১১তম মো. ওমর হায়াত, ১৪তম মো. আরিফ, ২৮তম শাহাব উদ্দিন, ৩০তম মো. খুবাইব ও খুবাইব, ৪১তম মো. আবদুল্লাহ, ৪৮তম মো. নাছির উদ্দিন, ৫৭তম মো. ইসলাম। উক্ত জমাতে হাস্তমের দায়িত্বশীল শিক্ষক ছিলেন মাও. মো. বেলাল উদ্দিন (০১৮৩৪৬৩৬৭৩৩)। তাঁর বাড়ি উখিয়া উপজেলার ইনানী। জমাতে শশুম ও ছাহারুমে অংশ নিয়ে সম্মিলিত মেধা তালিকায় স্থান না পেলেও শ্রেষ্টত্ব অর্জন করেছে। উক্ত দুই জমাতের দায়িত্বশীল ছিলেন মাও. মুফতী ছাবেত ও মাও. রফিক।
নুরানী বোর্ড
নুরানী বোর্ডের কেন্দ্রীয় সনদ পরিক্ষায় নুরানী বিভাগের ৩য় শ্রেনীর ৫৮ জন ছাত্র-ছাত্রী পরিক্ষায় অংশ নিয়েছিল। এতে শতভাগ পাশ ছাড়াও ৩৫ জন শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ পেয়েছে। এরা হচ্ছে মো.ফাহিম, মো. ইসমাইল, মো. জিহান, আহমদ নেজাত, আবু আনাস, মো. ফেরদাউস, মো. রিদওয়ান, মো. মিজান, মো. সালমান, ফাহাদুল ইসলাম, নুর কামাল, মো. মুহিম, শফিকুল হাসান, হামেদ, আবদুল্লাহ আনসারী, আবদুর রহমান, খাইরুল ইসলাম, কেফায়ত উল্লাহ, শাহিন খান, আফিফা হাজেরা, ছাফামরওয়া, হান্না বিবি, আফসানা আক্তার, শওকত আরা, রোমানা আক্তার, শাবনুর, মাহিয়া জান্নাত মণি, রুকিয়া আক্তার, জিহানা আক্তার, নাশিকা, মাহিয়া ইসলাম মাহি, জেসমিন আক্তার, তাসমিন, আরিফা সুলতানা, সিফা তাসমিন তিশা। প্রতি বছর একইভাবে ঈর্ষণীয় ফলাফল অর্জন করে আসছে। নুরানী বিভাগের দায়িত্বশীল হলেন মাও. মো. শব্বির (০১৮১২৫৬২৬৮২)। তাঁর বাড়ি হ্নীলায়।
লেদা ইবনে আব্বাস (রা.) আল-ইসলামিয়ার তত্বাবধানে পরিচালিত ‘হালিমাতুস সা’দিয়া (রা.) বালিকা মাদ্রাসা প্রতিষ্টার (স্থাপিত ২০১৮ ইংরেজী) মাত্র ৫ বছরের মাথায় বালিকা হিফজখানা চালু করা হয়েছে। এ বছর বালিকা শাখায় শ্রেনীও বৃদ্ধি করা হয়েছে। কঠোর নিরাপত্তা বেষ্ঠনী ও মনোরম পরিবেশে অবস্থিত আবাসিক এই বালিকা হিফজখানার সেমিপাকা ভবন, শিক্ষিকা-ছাত্রীর আবাসন, টয়লেট, অজুখানা নির্মাণ ও মহিলা হাফেজা শিক্ষিকা নিয়োগ সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে শাওয়াল-রমজান ক্বওমী শিক্ষা বছরের জন্য পুরোদমে ভর্তি চলছে। প্রতিষ্টাতা পরিচালক আলহাজ্ব মাও. ক্বারী শাকের আহমদের এই ব্যয়বহুল মহতী ও সাহসী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে এলাকাবাসী দ্বীনি স্বার্থে মাদ্রাসার উন্নয়নে দানশীল দেশী-বিদেশী শুভাকাংখীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

পাঠকের মতামত

ডেসটিনির পরিচালনা বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার প্রশান্ত

হাইকোর্টের নির্দেশে ডেসটিনি-২০০০ এর পরিচালনা বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান হয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার প্রশান্ত ভূষণ ...

বান্দরবানে কেএনএফের আস্তানায় যৌথ বাহিনীর অভিযান, নিহত ৩

বান্দরবানের রুমা উপজেলার রনিন পাড়ার কাছে ডেবাছড়া এলাকায় কেএনএফের একটি আস্তানায় সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে যৌথ বাহিনীর ...