প্রকাশিত: ১৯/০৯/২০১৭ ১০:৩৮ এএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ১:২০ পিএম

ডেস্ক রিপোর্ট::
রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ত্রাণ বিতরণে সেনাবাহিনীকে সম্পৃক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ত্রাণ সচিব শাহ কামাল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী ত্রাণে সহায়তা করছে সেনাবাহিনী। প্রয়োজনে তাদের কাজের আওতা আরো বাড়বে বলে জানিয়েছেন ত্রাণ সচিব।

রোহিঙ্গাদের ত্রাণ বিতরণে বিএনপি সেনা মোতায়েনে দাবি করলেও রোববার এর সমালোচনা করেন সড়কমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তবে এর একদিন পরই ত্রাণ সচিব ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনকে জানালেন, গত কয়েকদিন ধরেই ত্রাণের কাজে সম্পৃক্ত রয়েছে সেনাবাহিনী।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ সচিব শাহ কামাল জানান, প্রধানমন্ত্রীর ২২ দফা নির্দেশনার মধ্যে প্রয়োজনে সেনাবাহিনীকে সম্পৃক্ত করারও নির্দেশনা রয়েছে রামু ক্যান্টমেন্ট থেকে প্রয়োজন অনুযায়ী সেনাবাহিনীর সহায়তা পাওয়া যাচ্ছে।

সরকারের পাশাপাশি দুটি আন্তর্জাতিক সংস্থা ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনার মূল দায়িত্ব আছে বলে জানান ত্রাণ সচিব।

শাহ কামাল আরো জানান, ত্রাণ বিতরণের মূল দায়িত্ব পালন করছে ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রাম। তারা দিচ্ছে ২ লাখ ৫৩ হাজার মানুষকে। জেলা প্রশাসন দিচ্ছে ১ লাখ। বাকী ৪ লাখের বেশি মানুষকে ত্রাণ দিচ্ছে এসিএফ। কেউ ত্রাণ পায়নি বললে তা সঠিক না।

ব্যক্তিগত উদ্যোগে কক্সবাজারে ত্রাণ বিতরণের সুযোগ নেই জানিয়ে ত্রাণ সচিব বলেন, পুরো কাজের সমন্বয় করছে সরকার। বাড়ানো হয়েছে জনবল।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ সচিব শাহ কামাল আরো মনে করেন, ১৪ জন সিনিয়র অ্যাসিস্টেন্ট সেক্রেটারি কাজ করছেন। পুলিশের ৩০৭ কর্মকর্তা। ত্রাণ বিতরণে আটটি কেন্দ্র করা হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে ১শ জন কাজ করছে। স্থানীয় স্ব্চ্ছোসেবক ১শ জন। পুলিশও রয়েছে।

প্রতিদিনই রোহিঙ্গা শরণার্থীর সংখ্যা বাড়ছে জানিয়ে ত্রাণ সচিব জানান, বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা রোহিঙ্গাদের শিগগিরই ক্যাম্পে নিয়ে আসা হবে।

পাঠকের মতামত

নিজের সম্মানির টাকা মেধাবী শিক্ষার্থীকে দিলেন নাইক্ষ্যংছড়ির ইউএনও

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকারিয়া নিজের প্রাপ্ত সম্মানির টাকা আর্থিক অনুদান হিসেবে প্রদান করলেন ...