প্রকাশিত: ০৬/১১/২০১৭ ১০:০৪ পিএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ১১:৩১ এএম

উখিয়া নিউজ ডেস্ক::

৪ লাখের সঙ্গে আরও ৬ লাখ রোহিঙ্গার ভার যোগ হওয়ার মধ্যে সোমবার সচিবালয়ে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নে একথা বলেন তিনি।

আগামী বাজেটে রোহিঙ্গা সঙ্কট প্রভাব ফেলবে কি না- এই প্রশ্নে অর্থমন্ত্রী বলেন,“রোহিঙ্গা ডিপার্টমেন্টস যা চাচ্ছে, আমরা তাই দিচ্ছি, তবে প্রেসার খুব বেশি হবে না।”

তবে বাজেটের উপর চাপ না পড়ার কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্য যে খরচাপাতি হচ্ছে, তা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মাধ্যমে হচ্ছে।

“আমার বাজেট হেস্তনেস্ত হয়ে যাবে, সে রকম হয়ত হবে না।”

মিয়ানমারের রাখাইনে নির্যাতনের স্বীকার হয়ে গত আড়াই মাসে ৬ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে; আগে বিভিন্ন সময় আসা আরও ৪ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে শরণার্থী জীবন কাটাচ্ছে।

মানবিক কারণে এই রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিলেও বিশাল এই শরণার্থীর ভার সামলানো বাংলাদেশের পক্ষে কষ্টকর বলে আন্তর্জাতিক মহলও স্বীকার করছে।

মিয়ানমারের তীব্র সমালোচনা করে সম্প্রতি মুহিত বলেছিলেন, “মিয়ানমার একটা ব্লাডি কান্ট্রি, মিয়ানমার একটা বদমায়েশ দেশ। এই মিয়ানমার দেশটি এ বছর বাংলাদেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করবে।”

রোহিঙ্গাদের জন্য এডিবির কাছে সহায়তা চাওয়া হবে বলে জানান মুহিত।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “হ্যাঁ, আমরা অফকোর্স চাইব। আমরা ওয়ার্ল্ড ব্যাংক থেকে চেয়েছি। এডিবির যেটা হল, আমাদের যে নরমাল কোটা তার থেকে বের হয়ে রোহিঙ্গাদের জন্য আমাদের প্রজেক্ট বানাতে হবে।”

অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর এডিবির দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক মহাপরিচালক হুম কিম সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশ সরকার চাইলে রোহিঙ্গাদের সহায়তা করতে প্রস্তুত তারা। তবে এডিবি যেহেতু ব্যাংক, সে ক্ষেত্রে রোহিঙ্গাদের অর্থ সহায়তা দেওয়ার আগে একটা পন্থা বের করতে হবে।

আগামী ৫ বছরে বাংলাদেশে ৮ বিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তা দেওয়ার কথা বলেন হুম কিম।

রোহিঙ্গা সঙ্কট দীর্ঘস্থায়ী হবে বলেও শঙ্কা প্রকাশ করেন মুহিত।

আগামী বাজেটের একটা সম্ভাব্য অঙ্ক নিয়ে পরিকল্পনা করতে সচিবকে বলা হয়েছে বলে জানান অর্থমন্ত্রী।

বর্তমান অর্থবছরের বাজেটের আকার ৪ লাখ কোটি টাকা। বর্তমান সরকারের শেষ বাজেট হবে আগামী বছর। মুহিত ওই বাজেটের আকার ৫ লাখ কোটি টাকায় নেওয়ার স্বপ্ন আগে থেকেই দেখছেন।

মন্ত্রণালয়গুলোর কী পরিমাণ চাহিদা থাকতে পারে, তা সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যে পাওয়া যাবে বলে আশা করছেন মুহিত।

পাঠকের মতামত

আক্রান্ত হলে পাল্টা জবাব দেবে বাংলাদেশ, আমরা প্রস্তুত আছি: কাদের

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে উত্তেজনা বিরাজ কয়েকদিন ধরে। সেন্টমার্টিনের অদূরেই অবস্থান করছে মিয়ানমারের একাধিক যুদ্ধজাহাজ। এছাড়া, টেকনাফ-সেন্টমার্টিন ...

বাংলাদেশি ট্রলারে গুলি, মিয়ানমারকে প্রতিবাদ জানাল বাংলাদেশ

টেকনাফ ও সেন্টমার্টিনের মধ্যে চলাচলকারী বাংলাদেশি ট্রলারকে লক্ষ্য করে থেকে গুলি চালানোর ঘটনায় মিয়ানমারকে প্রতিবাদ ...

সেনাবাহিনীর প্রধান হলেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান

সেনাবাহিনী প্রধান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান। আগামী ২৩ জুন তিনি সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব ...