প্রকাশিত: ১১/১০/২০১৭ ৪:০৩ পিএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ১২:২৪ পিএম

জসিম মাহমুদ,টেকনাফ ::
মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর নির্যাতন থেকে বাঁচতে সাঁতার কেটে শাহ পরীর দ্বীপ নাফ নদী পাড়ি দিয়ে শাহ পরীর দ্বীপ জেটি ঘাটে পৌছে ১১ রোহিঙ্গা যুবক। সাতাঁরকেটে আসা যুবক হামিদ হোছেন বলেন তারা ১১ জন যুবক সকাল ৭টা সময় মিয়ানমার ওপাড় থেকে সাঁতার কাটা শুরু করে ৯টা ৩০ মিনিটের সময় বাংলাদেশে কোস্ট র্গাড বাংলাদেশের সীমান্ত থেকে তাদের কে উদ্ধার করে শাহ পরীর দ্বীপ জেটিতে নিয়ে আসে।
কোস্টগার্ডের শাহপরীর দ্বীপ স্টেশনেরর কমান্ডার লে. জাফর ইমাম সজীব জানান তেলের খালি ড্রাম নিয়ে সাঁতার কেটে ১১ জন বাংলাদেশে ঢোকার চেষ্টা করছিলেন। এর মধ্য পাঁচ জন নাফ নদীর পাড়ের কাছাকাছি চলে আসলেও অপর ছয় জন দূরে ছিলেন এবং তারা ক্লান্ত হয়ে যান। কোস্টগার্ডের টহল দল তাদের দেখে উদ্ধার করে।
এর মধ্য ১৫ বছরের নিচে তিন শিশু রয়েছে। এরা মিয়ানমারের নাইক্ষ্যংদিয়া থেকে নৌযান না পেয়ে সাঁতার কেটে বাংলাদেশে আসছিল। টানা ৩ ঘণ্টা তাদের সাঁতার কাটতে হয়। এদের চিকিৎসা এবং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রেরণ করতে বিজিবি কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত

নিজের সম্মানির টাকা মেধাবী শিক্ষার্থীকে দিলেন নাইক্ষ্যংছড়ির ইউএনও

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকারিয়া নিজের প্রাপ্ত সম্মানির টাকা আর্থিক অনুদান হিসেবে প্রদান করলেন ...