প্রকাশিত: ১৬/০৫/২০১৭ ৯:২৬ পিএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ৬:০৮ পিএম

নিউজ ডেস্ক::

মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ শান্তি প্রক্রিয়ায় প্রয়োজনীয় সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে আগ্রহী চীন। সীমান্তে তৎপর জাতিগত গেরিলা গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে মিয়ানমার সরকারের দ্বন্দ্ব নিরসনেও দেশটির সঙ্গে কাজ করে যাবে বেইজিং। মঙ্গলবার বেইজিংয়ে সিল্ক রোড সম্মেলনের পর দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিতি হন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এবং মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দলের নেত্রী অং সান সুচি। এ সময় সুচি-কে এই প্রস্তাব দেন চীনের প্রেসিডেন্ট। চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

চীনা প্রেসিডেন্ট বলেন, সীমান্তে শান্তি বজায় রাখতে দুই দেশকেই কাজ করতে হবে। উভয় দেশের সীমান্তের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা ধরে রাখতে দুই দেশের সরকারকে অব্যশই যৌথভাবে কাজ করতে হবে।

মিয়ানমারকে অভ্যন্তরীণ শান্তি প্রক্রিয়ায় সহায়তার প্রস্তাব দিলেও ঠিক কী ধরনের সহায়তায় আগ্রহী চীন সেটা অবশ্য পরিষ্কার নয়। তবে, দক্ষিণ সীমান্তে চীন সম্প্রতি সামরিক মহড়া চালিয়েছে। এর আগে রোহিঙ্গা ইস্যুতে দেশটি মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যকার দ্বন্দ্বে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছিল। অবশ্য, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মিয়ানমারের উগ্র বৌদ্ধ সন্ত্রাসী ও সেনাবাহিনীর জাতিগত নিধনযজ্ঞের বিরুদ্ধে চীনকে কখনও সরব হতে দেখা যায়নি।

পাঠকের মতামত

স্বাভাবিক পথে সেন্টমার্টিনে যাচ্ছে খাদ্যপণ্য, টেকনাফে ফিরছে যাত্রী

অবশেষে স্বাভাবিক হচ্ছে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে নৌযান চলাচল। দীর্ঘ ৩৩ দিন পর টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে যাতায়াত করছে ...