প্রকাশিত: ০৮/০৯/২০১৬ ৮:০৪ এএম

Pic Faruk 07-09-2016 (1) [Max Width 640 Max Height 480]ফারুক আহমদ, উখিয়া
খুনিয়াপালং ইউনিয়নের মরিচ্যা- গোয়ালীয়া খালের  বিধ্বস্থ ব্রীজটি পুঃন নির্মাণ না হওয়ায় শত শত গ্রামবাসী যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় পণ্য পরিবহণ ও সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।ইউপি মেম্বার মোস্তাক আহমদ ও স্থানীয় জনগণ খালে ধ্বসে যাওয়া ব্রীজটি পুঃন নির্মান করে সড়ক যোগাযোগ নিশ্চিত করার জোর দাবী জানান।

উখিয়ার সীমান্ত বর্তী রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের মরিচ্যা- গোয়ালীয়া খালের উপর নির্মিত ব্রীজটি বিগত ২০০৮ সালে ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুর আঘাতে বিধ্বস্থ হয়ে খালে ধ্বসে যায়। ২০০৩ সালে প্রায় ৫৮লক্ষ টাকা ব্যয়ে ব্রীজটি এলজিইডি নির্মান করেছিল। ব্রীজটি বিধ্বস্ত হওয়ায় জেলা ও উপজেলা সদরের সাথে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

স্থানীয় ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোস্তাক আহমদ জানান, প্রবল বর্ষণে ব্রীজের বিশাল একটি অংশ খালে ধ্বসে পড়ে। এতে জনগণ যাতায়াতে সীমাহীন দুর্ভোগের শিকার হয়। দীর্ঘ ৭/৮ বছর ধরে ব্রীজটি পুঃন নির্মান করা হয়নি।যার কারণে হাজার হাজার গ্রামবাসী যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। তিনি উক্ত ব্রীজটি দ্রুত পুনঃ নির্মান করার জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নিকট জোর দাবী জানিয়েছেন।

এলাকাবাসীরা বলেন দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে মরিচ্যা- গোয়ালীয়া খালের বিধ্বস্থ ব্রীজের কারণে জনগণ দুর্ভোগের শিকার হলে স্থানীয় যুবনেতা ও বর্তমান ইউপি মেম্বার মোস্তাক আহমদ নিজের ব্যক্তিগত তহবিলের অর্থ দিয়ে কাঠের সেতু নির্মান করে কোন রকম যাতায়াতের ব্যবস্থা করেন। এদিকে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর বিধ্বস্ত ব্রীজটি পুঃন নির্মানের জন্য প্রাক্কলন তৈরী ও অর্থ বরাদ্দ প্রদান করেছেন।

পাঠকের মতামত

কক্সবাজারে হচ্ছে ‘বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট’

প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান বলেছেন, ন্যায়বিচার পাওয়ার অধিকার বাংলাদেশের সব নাগরিকের রয়েছে, এটা সংবিধানে গ্যারান্টি ...

ইনানীতে হচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের পূর্ণাঙ্গ প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

অবশেষে কক্সবাজারে হচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের পূর্ণাঙ্গ আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং অত্যাধুনিক ফায়ার স্টেশন। অর্থনৈতিক এবং ...