প্রকাশিত: ০৭/০৯/২০১৬ ৭:৩১ এএম

14224859_1131038373642232_1622949010785495666_nপ্রেস বিজ্ঞপ্তি
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, কক্সবাজার জেলা শাখা আয়োজিত দুইদিনব্যাপী রাজনৈতিক কর্মশালা ও বর্ধিত সভার সফল সমাপ্তি হয়েছে। ৫ সেপ্টেম্বর হোটেল সী প্যালেসের হলরুমে সকাল থেকে প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। বিকালে বর্ধিত সভা শুরু হয়ে শেষ হয় রাত ১১টায়। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ জয়ের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক ইমরুল হাসান রাশেদের সঞ্চালনায় বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি লিয়াকত সিকদার। প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সংগঠনকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিতেন। প্রধানমন্ত্রীও সংগঠনকে সর্বাধিক গুরুত্ব দেন। বাংলাদেশর স্বাধীনতা, ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে ছাত্রলীগের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। এটা অস্বীকার করার কোনো সুযোগ নেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে বর্তমানে অভূতপূর্ব উন্নয়নের গর্বিত অংশীদার ছাত্রলীগ। এই অর্জনের ধারবাহিকতা রক্ষা করার জন্য প্রতিটি ছাত্রলীগ নেতাকর্মীকে আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে। ছাত্রলীগকে ভালো কর্মীর পাশাপাশি ভালো ছাত্র হতে হবে। তিনি আরো বলেন ছাত্রলীগের মতো সুশৃংখল ছাত্র সংগঠন আর নেই। তিনি বিভিন্ন উপজেলা, ইউনিয়ন, ওয়ার্ডে দ্রুত পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের তাগিদ দেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন বাংলাদেশের মধ্যে মডেল জেলা ছাত্রলীগ হবে কক্সবাজার।

বর্ধিত সভায় ছাত্রলীগের সভাপতি এম সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের দুইদিনব্যাপী কর্মশালা সফলভাবে আয়োজন করায় কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগকে ধন্যবাদ দেন। তিনি বিভিন্ন বিভিন্ন উপজেলার মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিতে দ্রুত সম্মেলন ও কাউন্সিল সম্পন্ন করার নির্দেশ দেন। সেইসাথে যেসব উপজেলায়, ইউনিয়নে, ওয়ার্ডে পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি তা অল্প সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করতে বলেন। এই সময় আরো বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ উপ কমিটির সহ-সম্পাদক প্রশান্ত ভূষন বড়–য়া, ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন।

বর্ধিত সভায় মেয়াদোত্তীর্ণ বিভিন্ন উপজেলা ও সাংগঠনিক থানার সম্মেলন ও কাউন্সিলের তারিখ ঘোষণা করা হয়।

এর আগে সকালে শুরু হয় রাজনৈতিক প্রশিক্ষন কর্মশালা। কর্মশালায় সহস্রাধিক কর্মীদের বিভিন্ন বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ প্রদান করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড.মিজানুর রহমান, সিনিয়র পলিসি এনালিস্ট সিআরআই ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য আমিনুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি শাহজাহাদা মহিউদ্দিন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন।

প্রশিক্ষণ কর্মশালা শেষে অংশগ্রহণকারী সকলকে বঙ্গবন্ধুর অসামপ্ত আতœজীবনী, শেখ হাসিনা সমগ্র, মাতৃভূমি, আয়েশা মঙ্গল, মাসহ বিভিন্ন লেখকের বই বিতরণ করা হয়। কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে পরিচালনায় স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে কুইজ প্রতিযোগিতা, সেøাগান প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার তুলে দেন অতিথিবৃন্দ।

দুইদিনব্যাপী কর্মশালা ও বর্ধিত সভায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের অসংখ্য নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন জেলার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মতামত