প্রকাশিত: ১১/০৬/২০১৭ ৪:২৭ পিএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ৪:৪১ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক
ফেসবুকের অনুকরণে একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ওয়েবসাইট তৈরি করেছে সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্র। ওয়েবসাইটটি তৈরি করার পর কয়েক বার হ্যাকিংয়ের কবলে পড়েছে। হ্যাকিং থেকে উদ্ধার হওয়ার পর এখন মোবাইলে হত্যার হুমকি পাচ্ছে সেই কিশোর। প্রায় ১ সপ্তাহ বাড়ি থেকে বের হতে পারছে না ওই স্কুলছাত্র ও তার পরিবার।
স্কুলছাত্রের নাম আবরার নুর অর্ণব। সে ঝিনাইদহ সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র। তার তৈরি করা ওয়েবসাইটটির নাম পোস্টটাচ ডটকম (posttouch.com)।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, অর্ণবের বাবা কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন কর্মকর্তা। থাকেন ঝিানইদহ শহরের ব্যাপারীপাড়ার একটি ভাড়া বাড়িতে। পঞ্মচ শ্রেণিতে পড়ার সময় থেকে কম্পিউটার নিয়ে নাড়াচাড়া শুরু করে অর্নব। এরই মধ্যে কম্পিউটার ও ওয়েবসাইট নির্মাণ নিয়ে অনেক কিছু শিখেছে সে।
১৬ ডিসেম্বর থেকে অর্ণব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নতুন ওয়েবসাইট তৈরীর কাজে হাত দেয়। ১৮ এপ্রিল সে সফল হয়। ৬৪ জন তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একাউন্ট খোলে। তার এই সাফল্য চোখে পড়ে হ্যাকারদের।
পরিবারের লোকজন জানায়, গত ২২ মে প্রথম তার ওয়েবসাইট পোস্টটাচ হ্যাক করা হয়। অনেক চেষ্টার পর তা উদ্ধার করা হয়। আবারো হ্যাক করা হয়। সর্বশেষ হ্যাকাররা এসকিউএল ইনজেকশান পুশ করে সব কিছু নষ্ট করে দেয়। এতেও দমেনি অর্নব। নতুন করে আবারো শুরু করে ওয়েবসাইটির কাজ।
এখন আব্দুল আলিমের মোবাইল ফোনেএসএমএস দিয়ে হত্যার হুমকি দিচ্ছে দুর্বত্তরা। বিষয়টি জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে জানানো হলে বাড়িতে পুলিশের ব্যবস্থা করা হয়েছে তবুও আতংকিত পরিবার। বাড়ি থেকে বের হতে পারছেন না পরিবারের লোকজন। বন্ধ রয়েছে তার লেখাপড়া।

অর্ণবের বাবা আব্দুল আলিম বলেন, ‘এই ঘটনার পর থেকে আমার পরিবার নিয়ে চরম আতংকের মধ্যে আছি।’
এ ব্যাপারে সদর থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ বলেন, অর্ণবের বাবা একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে, তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন জানান, বিষয়টি জানার পর থেকে তিনি অর্ণবের ও তার পরিবারে সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহন করেছেন। এছাড়াও ব্যক্তিগত ভাবে তিনি সবসময় খোঁজ খবর রাখছেন।

পাঠকের মতামত

তেল ছাড়ায় চলবে বাজাজ বাইক!

শীঘ্রই প্রথম সিএনজি মোটরসাইকেল চালু করার প্রস্তুতি নিচ্ছে বাজাজ। বাইকটি বাজারে আসলে তেল খরচ নিয়ে ...