প্রকাশিত: ১০/০৭/২০১৬ ৭:৩৪ এএম

IMG_20160709_234421 [Max Width 640 Max Height 480]আব্দুল মালেক, সেন্টমার্টিন::

“প্রবাল দ্বীপ সেন্টমাটিন রক্ষার্থে বেড়িবাঁধ চাই” ব্যানারে মানববন্ধন করেছেন সেন্টমাটিন আদর্শ সংসদ। আজ ৯ জুলাই শনিবার দুপুর ২ ঘটিকায় স্থানীয় বাজার প্রাঙ্গণে গ্রীনারী বাংলাদেশের সহযোগিতায় সেন্টমাটিনের জনকল্যাণমুলক সংগঠন সেন্টমাটিন আদর্শ সংসদ উক্ত মানববন্ধনের আয়োজন করেন। বাংলাদেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনকে রক্ষার্থে “গ্রিনারী বাংলাদেশ ও সেন্টমার্টিন আদর্শ সংসদের” যৌথ উদ্যোগে টেকসই বেড়িবাঁধ চাই” এই শ্লোগানে “সেন্টমার্টিন সর্বস্তরের জনগনের অংশগ্রহণে বিশাল এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বাংলাদেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপ সাগরকন্যা সেন্টমার্টিন। বাংলার লক্ষ মানুষের স্বপ্ন জাগানো এই দ্বীপ কালের পরিক্রমায় আজ চরম অস্তিত্ব সংকটে। বঙ্গোপসাগরের করুণ লিলাখেলায় এই দ্বীপ দিন দিন ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ছে। তাই বাংলাদেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনকে রক্ষার্থে গ্রিনারী বাংলাদেশ ও সেন্টমার্টিন আদর্শ সংসদ “গাছ লাগান, দ্বীপ বাঁচান, সেন্টমার্টিন রক্ষার্থে বেড়িবাঁধ চাই”সহ বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। তারই অংশ হিসেবে আদর্শ সংসদ এই কর্মসূচির আয়োজন করেন। সেন্টমাটিন আদর্শ সংসদের সভাপতি, সেন্টমার্টিন বিডি নিউজের নির্বাহী সম্পাদক, গ্রীনারী বাংলাদেশ কক্সবাজার জেলার সমন্বয়ক সাংবাদিক হেলাল উদ্দিন সাগরের সভাপতিত্বে উক্ত মানববন্ধনে দ্বীপের ছাত্র সমাজ, এলাকার জনপ্রতিনিধি, বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সমাজ সেবক ও নানা শ্রেণী পেশার মানুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন। সংসদের সিনিয়র সহ-সভাপতি, গ্রীনারী বাংলাদেশ কক্সবাজার জেলার সহকারী সমন্বয়ক মোহাম্মদ আবদুল মালেকের উপস্থাপনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ৬ নং সেন্টমাটিন ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নূর আহমদ। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, “বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমাটিন দ্বীপ। এটি শুধু বাংলাদেশের নয় পুরো পৃথিবীজোড়ে পরিচিত পর্যটন শিল্প বিকশিত করার একমাত মাধ্যম। কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় যে, আজ এই সুন্দর প্রবাল দ্বীপ তার অস্তিত্ব নিয়ে চরম সংকটে। সমুদ্রের ডেউয়ের আঘাতে দ্বীপের মুল-ভূখণ্ড ভেঙ্গে ছোরমার হয়ে যাচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে খুব অল্প দিনের মধ্যে বাংলাদেশ তার মানচিত্র থেকে স্বপ্নের প্রবালদ্বীপকে চিরদিনের জন্য হারিয়ে ফেলবে। আমি আপনাদের (দ্বীপবাসীদের) কথা দিচ্ছি বাংলাদেশের সম্পদ বিশ্বের অন্যতম প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনকে রক্ষার জন্য যা যা করার প্রয়োজন তাই করব, প্রয়োজনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর সুপারিশ করবো “। হোসেন জহুরা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জনাব এম এ রহিম বলেন, ” সেন্টমার্টিন আদর্শ সংসদ বরাবরের মত এবারও জনকল্যাণমুলক কর্মসূচি নিয়ে দ্বীপবাসীর মনের গভীরে আস্থা স্থাপন করেছেন। আমি সংসদের সকল সদস্যকে অভিনন্দন জানাই “। এতে আরোও বক্তব্য রাখেন সেন্টমার্টিন ইউপির সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান জনাব আব্দুর রহমান, বর্তমান ইউপি সদস্য জনাব হাবিব খাঁন, বর্তমান ইউপি সদস্য আব্দুর রহমান, সেন্টমার্টিন বিডি নিউজের সম্পাদক জনাব কেফায়েত উল্লাহ খাঁন, নাফ ট্যুরিজমের চেয়ারম্যান জনাব আতাউর রহমান, সেন্টমার্টিন স্টুডেন্টস ফোরামের সভাপতি জনাব তৈয়ব উল্লাহ, সেন্টমার্টিন পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের পরিদর্শক মোঃ জসীম উদ্দিন, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি খোরশেদ আলম, বর্তমান সভাপতি জাহেদ হোসেন, কক্সবাজার সরকারি কলেজের ছাত্র আয়াত উল্লাহ খোমেনী, আয়াছ উদ্দিন, সেন্টমার্টিন আদর্শ সংসদের সিনিয়র সহসভাপতি হাফেজ সালা উদ্দিনসহ অনেকে। উপস্থিত সকলের মাঝে একটাই দাবি ছিল “প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিন রক্ষার্থে টেঁকসই বেড়িবাঁধ চাই”। সংসদের সভাপতি হেলাল উদ্দিন সাগর দ্বীপবাসীকে নিজেদের অধিকার আদায়ে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। দ্বীপের এই শোচনীয় অবস্থা থেকে মুক্তির জন্য রাজপথে থেকে যতক্ষণ পর্যন্ত অধিকার আদায় হবেনা মাতৃভূমিকে রক্ষার জন্য ততক্ষণ পর্যন্ত দ্বীপবাসীকে সাথে নিয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।
মানববন্ধনে দেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপ বিশ্ব পর্যটন শিল্পের অন্যতম খাত সেন্টমার্টিন দ্বীপকে রক্ষার্থে টেঁকসই বেড়িবাঁধ দেওয়ার জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের প্রতি আহবান জানানো হয়।

পাঠকের মতামত

সেন্টমার্টিন নিয়ে গুজবে কান না দেওয়ার অনুরোধ আইএসপিআরের

মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলমান সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে সোশ্যাল মিডিয়ায় সেন্টমার্টিনের নিরাপত্তা নিয়ে বিভিন্ন স্বার্থান্বেষী মহলের গুজবে ...

ঈদের ছুটিতে পর্যটক বরণে প্রস্তুত কক্সবাজার কক্সবাজার প্রতিবেদক

পবিত্র ঈদুল আজহার টানা ছুটিতে ভ্রমণপিপাসুদের বরণে পুরোপুরি প্রস্তুত হয়েছে সমুদ্র শহর কক্সবাজার। আগত পর্যটকের ...

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বড় চ্যালেঞ্জ জন্মনিয়ন্ত্রণ

কক্সবাজারে রোহিঙ্গা আশ্রয়শিবিরগুলোতে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দেখা দিয়েছে জন্মনিয়ন্ত্রণ। সরকারি-বেসরকারি নানা উদ্যোগের পরও ক্যাম্পগুলোয় জন্মহার ...