ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ১৯/০৫/২০২৪ ১০:৩৫ পিএম , আপডেট: ১৯/০৫/২০২৪ ১০:৪৪ পিএম
গত কয়েকদিন যাবত বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকা ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে  প্রকাশিত “মাদক পাচারকারী আটক হলেও বারবার ধরাছোঁয়ার বাহিরে গডফাদাররা” ও “সীমান্তে অবৈধ চোরাইমাল ব্যবসায় কোটিপতি তারা” শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনটি আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। প্রতিবেদনটিতে সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য উপস্থাপনের মাধ্যমে আমাদের ব্যাক্তি ও সামাজিক মর্যাদাকে আঘাত করার হীন প্রচেষ্টা চালানো হয়েছে।
উক্ত সংবাদে আমাদেরকে অবৈধ ব্যবসায় বনে গেছেন কোটিপতি, নামে-বেনামে অঢেল সম্পদ অর্জন এবং ইয়াবা
কারবারে জড়িত আছি, মামলা হয়েছিল, তা মোটেও সত্য নয়। আমার ও আমার শালা রায়হানের নানার পরিবার সম্ভ্রান্ত, দাদার পরিবার সম্ভ্রান্ত। আমার বাবা দীর্ঘ ২ যুগ ধরে প্রবাসী। আমি আমার বাবার সহায় সম্পত্তি দেখা শুনা করি। এলাকায় আমার পরিবার ভালোমত খেয়ে পরে চলছি, এটাই হয়তো আমাদের অপরাধ।
কিছু পরশ্রিকাতর হিংসুক মানুষ হয়তো সাংবাদিক ভাইদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে ষড়যন্ত্রমুলক ভাবে এসবে বিনা অজুহাতে জড়িয়ে আমাদের সামাজিক পারিবারিক, ব্যবসায়ীক মান-মর্যাদা ক্ষুন্ন করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আমার ই আমার সালা রায়হানের নামে মাদক কিংবা অন্য কোন অভিযোগেও কোন মামলা মোকাদ্দমা ও অভিযোগ নেই। আমি হলফ করে বলতে পারি, আমি বা আমাদের পরিবার কোন হারামের ব্যবসায় জড়িত ছিলাম না আদৌ নাই। আমাদের পরিবার ধর্মভীরু হালাল ব্যবসায়ী। আমাদের বিরুদ্ধে আনিত এবং উপস্থিত তথ্য সম্পূর্ন মিথ্যাচার ছাড়া কিছুই নয়। উক্ত ভিত্তিহীন সংবাদে আইনশৃংখলা বাহিনীকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য বিনিত অনুরোধ জানাচ্ছি। সাংবাদিকরা হচ্ছে জাতির বিবেক। তাই প্রকৃত তথ্য যাচাই বাছাই না করে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।
প্রতিবাদকারী
সাইফুল ইসলাম মামুন
ও রায়হান
ঘুমধুম আজুখাইয়া, নাইক্ষ্যংছড়ি

পাঠকের মতামত

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঁচ মাসে ২৬ খুন

কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা আশ্রয়শিবিরে খুন-অপহরণের মতো অপরাধ আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে। আশ্রয়শিবিরের নিয়ন্ত্রণ, আধিপত্য বিস্তার, মাদক ...

ছু'রি'কা'ঘাতে মৃ'ত্যুর পথযাত্রী যুবক,টাকা লুট অনিরাপদ ঘুমধুমের টিভি টাওয়ার গরুর হাট

কক্সবাজার-টেকনাফ মহাসড়ক লাগোয়া নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমের টিভি টাওয়ার গরুর হাটে প্রতিনিয়তই ঘটছে অপ্রীতিকর ঘটনা। হাট ...