প্রকাশিত: ২৯/১০/২০১৬ ৯:৪৭ পিএম , আপডেট: ২৯/১০/২০১৬ ৯:৪৮ পিএম

উখিয়া নিউজ ডটকম::

বহুল আলোচিত নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউপি’র উপ নির্বাচন সোমবার । রাত পোহালেই এ নির্বাচন অনুষ্টিত হবে এখানে। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাচন অফিস ঘোষিত তফশিল মতে ৩১ অক্টোবরের এ নির্বাচন অনুষ্টিত হবে যথাসময়ে  ও যথানিয়মে।

জানা যায়, এ তফশিল ঘোষনার পর মাত্র দু’জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দেন। এদের একজন নৌকা প্রতীকের আওয়ামী লীগ উপজেলা শাখার যুগ্ন আহবায়ক তসলিম ইকবাল চৌধুরী । আর ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন বিএনপি’র উপজেলা সভাপতি নুরুল আলম কোম্পানী।  মর্যাদার এ লড়াইয়ে দু’শেয়ানের জমজমাড় লড়াইয়ে প্রচারণায় নৌকা প্রতীকের তসলিম ইকবাল এগিয়ে গেলেও  বিএনপি-জামাতের ঘাঁটি খ্যাত এ ইউনিয়নের নির্বাচন অনেকটা বাঘে- মোষে লড়াই-এ শামিল।

নৌকা প্রতীকের সমর্থক- আশারতলীর মৌ: নুরুল আলম এ প্রতিবেদককে জানান,তারা এলাকার উন্ন্য়ন চায়। চায় শান্তি শৃংখলাও। এ কারণে ভোটাররা আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে ভোট দেবেন। আওয়ামী লীগ প্রার্থী বান্দরবান জেলার দায়িত্বরত মন্ত্রী বীর বাহাদুরের আস্থাভাজনও। সব মিলে এ প্রার্থী সব দিকে ফিট।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সচিব মো: ইমরান মেম্বার জানান, তাদের শেষ পথ সভা অনুষ্টিত ২৯ অক্টোবর সোমবার। চাকঢালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বিপুল লোকজনের উপস্থিতিতে এ পথ সভা অনুষ্টিত হয়। সভায় আওয়ামী লীগের সমস্ত নেতা কর্মি একাকার হয়ে এখানে তসলিমের নৌকা প্রতীকের  জন্যে ভোট প্রার্থনা করেছেন।  তার জয় এখন নিশ্চিত ।

পক্ষান্তরে বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল কাশেম জানান, নির্বাচন আর কী হবে তাদের বুঝতে কষ্ট হচ্ছে না। নির্বাচনের আগে মাত্র ২ দিনের মাথায়  গহীন রাতে তাদের ৪ জনপ্রিয় নেতাকে  বান্দরবান গোয়েন্দা পুলিশ আটক করে নিয়ে গিয়ে বান্দরবান সদর থানা পুলিশে সোর্পদ করেছেন।

এরা হলো  নাইক্ষ্যংছড়ি সদরের বিএনপি নেতা ফয়েজ আহমদ ওরফে ফকির আহমদ,বিছামারার আবদুল হক সওদাগর, আশার তলীর দুদু মিয়া ও চাকঢালার  ছৈয়দুল আমিন ।  এভাবে পুলিশী ধমক খেয়ে এখন বিএনপি নেতা কর্মিরা ঘর ছাড়া। এ অবস্থায় তারা শংকিত যে সুষ্ট নির্বাচন আদৌ হবে কি-না।

তিনি আরো জানান, তাদের ধানের শীষ মার্কার প্রার্থী নুরুল আলম কোম্পানী উচ্চ শিক্ষিত।  বিগত দিনে অনেক রাস্তা-ঘাট তিনি নিজের উদ্যোগে করেছ্ এলাকার মানুষের জন্যে।  নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে তাদের প্রার্থী  বিপুল ভোটে জয়ী হবেন। তিনি আরো জানান তাদের শেষ পথ সভা হয় গতকাল শনিবার বিকেলে। নাইক্ষ্যংছড়ি সদরের বিএনপি দলীয় কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্টিত হয় দলীয় নেতা কর্মিদের নিয়ে।

এদিকে ৩১ অক্টোবর সোমবারের নির্বাচন সুষ্ট করতে ৩১ বিজিবি অধিনায়ক লে: কর্ণেল আনোয়ারুল আজিম  তার কার্যালয়ে গতকাল শনিবার সকাল ১১ টায় দু’ প্রার্থীকে নিয়ে এক বৈঠক করেন। অসুন্দর মনোভাব পরিহার করে সুষ্ট নির্বাচন উপহার দিতে তিনি এ সময় উভয় প্রাথীকে  আহবান জানান। জবাবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী তসলিম ইকবাল চৌধুরী  ও  ধানের শীষের নুরুল আলম কোম্পানী  ঊভয়ই তার এ প্রস্তাবে আন্তরিক সমর্থন দিয়ে সুষ্ট নির্বাচনে বিষয়ে ৩১ বিজিবি অধিনায়ককে আশ্বস্থ করেন।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার  ও রির্টানিং অফিসার অরুন উদয় ত্রিপুরা জানান, নির্বাচন সুষ্ট করতে তার সব প্রস্তুতি শেষ। নির্বাচনী সব মালামাল ইতিমধ্যেই পৌছে গেছে। সুতারাং নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নের উপ-নির্বাচন এবং দৌছড়ি ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওর্য়াড়ের স্থগিত হওয়া কেন্দ্রের নির্বাচন অনুষ্টিত হবে  কাল সোমবার।

উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্র জানায়, ২০১৪ সালের ২ জুন অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. আবু সৈয়দের কাছে হেরেছিলেন বিএনপি প্রার্থী নুরুল আলম কোম্পানি। গত ২১ ফেব্রুয়ারি হৃদ্রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন চেয়ারম্যান মো. আবু সৈয়দ। এরপর শূন্যপদে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। এই ইউনিয়নের ভোটারের সংখ্যা ৯ হাজার ১২৬। এর মধ্যে নারী ভোটার ৪ হাজার ৩৭২ জন।

পাঠকের মতামত

উখিয়ায় সরকারি লোগো লাগানো গাড়ি থেকে ৭ লাখ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার ৪

কক্সবাজার মেরিন ড্রাইভ হতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত আত্মসমর্পণকৃত ইয়াবাকারবারি আবদুল আমিন (৪০) কে তার ৩ ...