প্রকাশিত: ১১/০৯/২০১৬ ৭:৫৮ এএম

উখিয়া নিউজ ডেস্ক::

কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন স্থানে ৯ জনের মৃৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ১০ সেপ্টেম্বর শনিবার পৃথক ঘটনায় কক্সবাজারের উখিয়ার ইনানী,রামু, টেকনাফ,চকরিয়া ও পেকুয়ায় তাদের মৃত্যু হয়।

এদের মধ্যে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ জন,পানিতে ডুবে ৩ জন, ছুরিকাঘাতে একজন এবং গাছ চাপায় ১ জন সহ মোট ৯ জনের মৃত্যূ হয়েছে। এই ৮ জনের মধ্যে উখিয়ায় ৩ জন,টেকনাফে ২ জন এবং চকরিয়া ও পেকুয়ার এক জন রয়েছে।

নিহতরা হলেন,পানিতে ডুবে নিখোঁজ হওয়া রামুর আসিফুর রহমান এবং আবদুর রহমান(লাশ উদ্ধার),চকরিয়ার নয়ন আজিজ(নিখোঁজ) সড়ক দুর্ঘটনায় জিয়াউল হক একজন বোরকা পরিহিত মহিলাজিয়াউল হক (২৫), একজন বোরকা পরিহিত মহিলা ও পিকআপ ভ্যানের চালক সহ ৩ জন এবং পেকুয়ায় যুবদল নেতা ঠিকাদার শাহিদুল করিম ছুট্টু(৩৭), টেকনাফে গাছ চাপায় মোঃ ইউনুছ প্রকাশ চাঁন মিয়া এবং ছুরিকাঘাতে সিএনজি চালক জাফর আলম নিহত হয়েছে। নিম্নে আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো….r10ddরামুতে নৌকা ডুবিতে নিখোঁজ ২ ছাত্রের লাশ উদ্ধার : চকরিয়ায় পানিতে ডুবে শিশু নিখোঁজ

আমাদের রামু প্রতিনিধি সোয়েব সাঈদ ও টাপু জানায় কক্সবাজারের রামুতে নৌকা ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ দুই স্কুল ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ১২ টা ৩৮ মিনিটে নিখোঁজ হওয়া আসিফুর রহমান এবং বেলা ২ টা ১৬ মিনিটে আবদুর রহমানের মৃতদেহ উদ্ধার করে চট্টগ্রাম থেকে আসা ডুবুরীদল।

নিহত আবদুর রহমান (১৬) দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের পশ্চিম উমখালী গ্রামের শামসুল আলমের ছেলে এবং আসিফুর রহমান আসিফ (১৭) একই ইউনিয়নের ঘাটপাড়া এলাকার বশির আহমদের ছেলে। তারা দুজনই রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশ শ্রেণির ছাত্র।

শনিবার বাদে আছর রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নিহত আসিফুর রহমান ও আবদুর রহমানের নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযায় ইমামতি করেন, চাকমারকুল মাদরাসার মুহাদ্দিস মাওলানা ফিরোজ আহমদ।

জানাযাপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে রামু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম, কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জিএম রহিম উল্লাহ, রামু উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান, রামু উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আলী হোসেন, দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুস ভূট্টো, দক্ষিণ মিঠাছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আহমদ শফি, দক্ষিণ মিঠাছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক জামাল হোছাইন চৌধুরীসহ সর্বস্তুরের হাজার হাজার জনতা।

জানাযায় নিহত শিক্ষার্থীদের পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখেন, আসিফুর রহমানের চাচা আলী আহমদ এবং আবদুর রহমানের বড় ভাই আবদুল্লাহ আল মামুন। জানাযা শেষে তাদের স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়।

উল্লেখ্য আগেরদিন শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকাল সাড়ে চারটায় রামুর চাকমারকুল ইউনিয়নের কলঘর বাজারের পাশে বাঁকখালী নদীর খেয়াঘাটে এ নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে ওই স্থানে নদীতে কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিসের দমকল কর্মীরা উদ্ধার তৎপরতা চালালে তা সফল হয়নি। পরে ওইদিন (শুক্রবার) রাতে চট্টগ্রাম থেকে আসা ডুবুরীদলের সদস্যরা রাতে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে ব্যর্থ হয়। পরে গতকাল শনিবার সকাল থেকে ফের অভিযান শুরু করে নিখোঁজ দুই ছাত্রকে উদ্ধারে সক্ষম হয়।

এদিকে নৌকা ডুবির ঘটনায় দুই মেধাবী শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যুতে পুরো রামুতে বিরাজ করছে শোকাবহ পরিবেশ।

নৌকা ডুবির ঘটনায় আহত ওই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র জিশান জানিয়েছে, তারা একই শ্রেণির ১২ জন শিক্ষার্থী গরু দেখার জন্য কলঘর বাজারে আসছিলো। বাজারের কাছাকাছি এসে বাঁকখালী নদী পার হওয়ার সময় তাদের সাথে আরো কয়েকজন ব্যক্তি জোর করে নৌকা উঠে যান।

এতে নৌকাটি নদীর মাঝখানে এসে ডুবে যায়। এসময় অনেকে সাতার কেটে নদীর পাড়ে উঠতে পারলেও সাতার না জানার কারনে নদীতে ডুবে যায় তার দুই সহপাঠি আবদুর রহমান ও আসিফ।

কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা (স্টেশন অফিসার) আবদুল মজিদ জানিয়েছেন, দূর্ঘটনাস্থলে পানির গভীরতা অনেক বেশী ছিলো। এ কারনে চট্টগ্রাম থেকে ডুবুরী এনে দুই ছাত্রকে উদ্ধার করা হয়েছে।ck10চকরিয়ায় মাতামুহুরী নদীতে ডুবে স্কুলছাত্র নিখোঁজ : জীবিত উদ্ধার-২

আমাদের চকরিয়া প্রতিনিধি এম.জিয়াবুল হক জানায়, কক্সবাজারের চকরিয়ায় মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে নয়ন আজিজ (১২) নামের পঞ্চম শ্রেণীতে পড়–য়া এক স্কুলছাত্র নিখোঁজ রয়েছে। তবে এসময় অপর দুই ছাত্র পানিতে ডুবলেও তাদের জীবিত উদ্ধার করতে পেরেছেন স্থানীয় লোকজন। শনিবার দুপুর ১২ টায় পৌরসভার ৮নম্বর ওয়ার্ডের নামার চিরিংগা এলাকার নদীর পয়েন্টে ঘটেছে এ ঘটনা।

নিখোঁজ ছাত্র নয়ন আজিজ চকরিয়া পৌরসভার ৩নম্বর ওয়ার্ডের ফুলতলা এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে। জীবিত উদ্ধার করা দুই ছাত্র হলেন- মোহাম্মদ ওসমান ও পুতু মিয়া। তিনজনই চকরিয়া সরকারি মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রৈনীর ছাত্র।

চকরিয়া সরকারী মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সরওয়ার আলম বলেন, নিখোঁজ ছাত্র নয়ন আজিজ আমাদের বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর গ” শাখায় পড়ে। নিখোঁজের খবর পেয়ে পরিবারেরর লোকজন ও স্কুলের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা মাতামুহুরী চরে সন্ধানে এসেছি।

নিখোঁজ ছাত্রের মা দিলুয়ারা বেগম বলেন, আমার চার ছেলে এক মেয়ের মধ্যে নয়ন আজিজ ৪র্থ সন্তান। স্কুল বন্ধ হলেও শনিবার সকালে স্কুলে কোচিং করতে যায়। ছুটি হলে বন্ধুদের সাথে মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে গিয়ে ডুবে নিখোঁজ হয়। নদীতে ছাত্র নিখোঁজ হওয়ার খবর পেয়ে চকরিয়ার দমকল বাহিনী ও একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।

চকরিয়া থানার এসআই আবদুল খালেক বলেন, পরিবার সদস্য ও স্থানীয় ডুবুরিরা টানা চার ঘন্টা খোঁজ করেও নিখোঁজ ওই ছাত্রের সন্ধান পাইনি। দমকল বাহিনীর ডুবুরি দল রামু থেকে পৌছলে নদীতে নেমে নিখোঁজ ছাত্রের খোঁজে অভিযান চালানো হবে।

এদিকে মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নেমে ছাত্র নিখোঁজের খবর ছড়িয়ে পড়লে নদীর পাড়ে শত শত নারী-পূরুষ ভীড় করে। এসময় ভীড়ের মাঝে ছাত্রের মা দিলুয়ারা বেগম ও বড় ভাই জয়নাল আবেদিন শোকে আহাজারি করছিল।ttttttটেকনাফে চালককে খুন করে সিএনজি ছিনতাই : কাঠ চাপায় শ্রমিকের মৃত্যু

আমাদের টেকনাফ প্রতিনিধি হুমায়ুন রশিদ জানায়, কক্সবাজারের টেকনাফে যাত্রীবেশে একদল দূবৃর্ত্ত চালককে খুন করে সিএনজি নিয়ে পালিয়েছে। অপহৃত সিএনজি উখিয়ার একটি গ্যারেজে সন্ধান মিললেও লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণের প্রস্তুতি চলছে।

জানা যায়-১০সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১০টারদিকে উপজেলার হ্নীলার রঙ্গিখালী গেইটের কিছুদূর দক্ষিণ-পশ্চিম লবণ মাঠে পরিত্যক্ত ব্যক্তির লাশ দেখতে পেলে চারদিকে হৈ ছৈ পড়ে যায়। পরে খোঁজ নিয়ে লাশের পরিচয় টেকনাফ পৌর এলাকার পুরাতন পল্লান পাড়ার ছৈয়দ হোছন প্রকাশ লেডুর পুত্র সিএনজি চালক জাফর আলম (২৮)বলে তার চাচা মনু ড্রাইভার সনাক্ত করেন।

এরপর বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করা হলে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের এসআই গৌতম রায়ের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরীর পর লাশ পোস্ট মর্টেমের জন্য নিয়ে যায়।

নিহতের শরীরে বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এই ব্যাপারে এসআই গৌতম রায় বলেন এখন যেতে যেতে বিকাল ৩টা পার হলে পোস্ট মর্টেম করা যাবেনা। তাই আগামীকাল ভোরে লাশ মর্গে প্রেরণ করা হবে।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি আব্দুল মজিদ পরিত্যক্ত লাশ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে ঘটনাস্থলে পুলিশ প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান।

নিহতের চাচা মনু জানান-শুক্রবার রাত ৯টারদিকে টেকনাফ হতে যাত্রী নিয়ে হ্নীলা ষ্টেশনের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করে জাফর আলম। সারা রাত খোঁজ খবর না পাওয়ায় সকালে খুঁজতে বের হলে হ্নীলার রঙ্গিখালী লবণ মাঠে তাঁর মৃতদেহ পাওয়া যায়।

এদিকে উক্ত চালকের উধাও হয়ে যায় সিএনজি। উখিয়ার জনৈক সেলিম মিস্ত্রির গ্যারেজে রয়েছে বলে দাবী করে। এদিকে স্থানীয় সচেতনমহল সিএনজি ছিনতাই অথবা গাড়ীর ভেতরে থাকা মাদকের চালান ছিনতাইয়ের লক্ষ্যে এই লোমহর্ষক ঘটনা বলে ধারণা করেন।

টেকনাফ স্থলবন্দরে কাঠ চাপায় রোহিঙ্গা শ্রমিকের মৃত্যু

অপরদিকে টেকনাফ স্থলবন্দরে কর্মরত অবস্থায় কাঠ চাপা পড়ে এক রোহিঙ্গা শ্রমিকের করুণ মৃত্যু ঘটেছে। বিকালেই তাকে স্থানীয় গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

জানা যায়-১০সেপ্টেম্বর সাড়ে ১০টারদিকে উপজেলার হ্নীলা লেদা অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা বস্তির সি-ব্লকের ৭০নং রোমের বাসিন্দা ছালেহ আহমদের পুত্র মোঃ ইউনুছ প্রকাশ চাঁন মিয়া (৩৩) প্রতিদিনের ন্যায় টেকনাফ স্থালবন্দরে কাজ করতে যায়।

ট্রলার হতে আমদানী করা কাঠ খালাসের সময় অসাবধানতাবশত পিছলে পড়ে ঘটনাস্থলে মারা যায়।

তাকে দ্রুত উদ্ধার করে রোহিঙ্গা বস্তিতে এনে বিকালেই স্থানীয় গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে। মৃত্যুকালে সে মা-বাবা,স্ত্রী,২ ছেলে ও ১মেয়ে রেখে যান।p1-2-coxbanglaসড়ক দূর্ঘটনায় পেকুয়ার যুবদল নেতা নিহত :

আমাদের পেকুয়া প্রতিনিধি মো: ফারুক ও নাজিম জানায় চকরিয়ায় জিপ ও মটর সাইকেল এর মুখামুখি সংঘর্ষে  পেকুয়া উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক নেতা বর্তমান উপজেলা যুবদল নেতা ঠিকাদার শাহিদুল করিম ছুট্টু(৩৭) নিহত হয়েছে।

এ সময় আরেক যুবদল নেতা মো: জিগার গুরুতর আহত হয়। নিহত ছুট্টু সদর ইউনিয়নের সিকদার পাড়া এলাকার মৃত আলহাজ্ব দেলোয়ার হোসেনের পুত্র ও আহত জিগার একই এলাকার মৃত নুর আহমদের পুত্র।

বর্তমানে মূমর্ষ অবস্থায় চমেক হাসপাতালে রয়েছে। ১০ সেপ্টেম্বর দুপুর আড়াইটায় চকরিয়াস্থ ইলিশিয়া ইউনিয়নের ঈদমনি এলাকায় এ মর্মান্তিক দূর্ঘটনা ঘঠে।  ১১ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় তার পারিবারিক খবরস্থানে নামাজে জানাযা অনুষ্টিত হবে।

চকরিয়া থানা পুলিশ ঘাতক জিপ ও চালক সদর ইউনিয়ন এর মিয়া পাড়া এলার শহিদুল ইসলামের পুত্র মো: দিদারকে আটক করেছে।

শহিদুল করিম ছুট্টু নিহত হওয়ার পর লাশ বাড়িতে নিয়ে আসার সাথে সাথে শোকাহত এলাকাবাসীরা বাড়িতে অবস্থান নেয়। এ সময় তার নিজ বাড়িতেও শোকের ছায়া নেমে আসে। কান্নায় ভারি হয়ে পুরো এলাকা। তার অবুঝ তিন সন্তানের চোঁখে পানি দেখা গেছে। তাদের পিতা আর নাই একথা বুঝতে না পারলেও হয়তোবা এলাকাবাসীর কান্নায় তাদের চোঁখেও পানি  চলে এসেছে।

এদিকে তার মর্মান্তিক মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছে উপজেলা বিএনপির সভাপতি বাহাদুর শাহ, উপজেলা যুবদলের সভাপতি শাফায়েত আজিজ রাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক ইউসুফ রোবেল, উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি কামরান জাদিদ মুকুট, সহ-সভাপতি এ্যাড: জাহেদুল ইসলাম, উপকূলীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম হিরু, সহ-সভাপতি মো: ফারুক ও উপকূলীয় সমাজ কল্যান ফাউন্ডেশন এর চেয়ারম্যান এস.এম এরশাদ।

 উখিয়ায় চলন্ত গাড়িতে ইয়াবার চালান নিয়ে ধস্তাধস্তি : সড়কেই নিহত-৩

আমাদের উখিয়া প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম জানায়, কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে আসা ইয়াবার বড় চালান লুটপাট করতে চলন্ত গাড়ীতে চালকের সাথে দস্তাদস্তির এক পর্যায়ে নিয়ন্ত্রণহীন পিকআপ ভ্যান পার্শ্ববর্তী বিল্ডিংয়ের সাথে ধাক্কা খেয়ে ধুমড়ে মুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলে একজন মহিলাসহ ৩ জনের মৃত্যু হয়। এ সময় গ্রামবাসী ইয়াবা চালান লুটপাট করার পরও সাড়ে ১৩শ’ পিস উদ্ধার করেছে পুলিশ।

অজ্ঞাত ২জন সহ তিন জনের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে বলে উখিয়া থানা পুলিশ জানিয়েছেন।

শনিবার সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে ইনানীস্থ মিশন লাবেলা রিসোর্টের পাশে এ মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নাম্বার বিহীন একটি পিকআপ ভ্যানে করে বিপুল পরিমাণে ইয়াবা কক্সবাজার যাচ্ছিল। এমন খবরের ভিত্তিতে ইয়াবা বহনকারী গাড়ীটিকে পেছন থেকে ধাওয়া করে আসছিল অপর একটি নাম্বারবিহীন মোটর সাইকেল আরোহী। ইনানী মিশন লাবেলা রিসোর্টের পাশে এসে মোটরসাইকেল আরোহী কৌশলে চলন্ত পিকআপ ভ্যানে উঠে চালকের সাথে দস্তাদস্তির এক পর্যায়ে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পার্শ্ববর্তী বিল্ডিংয়ের সাথে পিকআপ ভ্যানের ধাক্কা লাগে।

এসময় গাড়ীটি ধুমড়ে মুছড়ে যায়। ঘটনাস্থলে মোটরসাইকেল আরোহী মনখালী গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য ছিদ্দিক আহমদের ছেলে জিয়াউল হক (২৫), একজন বোরকা পরিহিত মহিলা ও পিকআপ ভ্যানের চালকসহ ৩ জনের মৃত্যু হয়।

জালিয়াপালং ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরী বলেন, ইয়াবার বড় চালান লুটপাটের ঘটনা নিয়ে এ হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনাস্থলে বিপুল সংখ্যক ইয়াবাপাচারকারীর উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেলেও দু’জন লাশের পরিচয় সম্পর্কে কেউ মুখ খুলছে না।

উখিয়া থানার ওসি তদন্ত কায়কিসলু বলেন, নিহত মহিলা ও চালকের পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে ঘটনাস্থল থেকে একটি মোটর সাইকেল ও পিকআপটি জব্দ করা হয়েছে।   সুত্র কক্সবাংলা

পাঠকের মতামত

উখিয়ায় সরকারি লোগো লাগানো গাড়ি থেকে ৭ লাখ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার ৪

কক্সবাজার মেরিন ড্রাইভ হতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত আত্মসমর্পণকৃত ইয়াবাকারবারি আবদুল আমিন (৪০) কে তার ৩ ...