প্রকাশিত: ১১/১২/২০১৬ ৭:৩৮ এএম

উখিয়া প্রতিনিধি ::

উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে স্কুল ছাত্রী গণধর্ষণের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে জনতা হাসপাতাল এলাকার ত্রাস আয়ুব খানকে আটক করে থানায় সোপর্দ করেছে। ধর্ষণ ঘটনায় সক্রিয়ভাবে জড়িত মূল আসামীরা এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছে। উক্ত ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের গঠিত তদন্ত কমিটির সময় আরো একদিন বাড়িয়েছে বলে জানা গেছে। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে উখিয়ার কোটবাজার বাস স্টেশন থেকে হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকার ত্রাস খ্যাত আয়ুব বাহিনীর আয়ুব খানকে (২৫) স্থানীয় জনতা আটক করে উখিয়া থানায় সোপর্দ করেছে। উখিয়া থানার ওসি মো. আবুল খায়ের জানান, উক্ত আয়ুব খান হাসপাতাল কেন্দ্রিক নানা অপরাধের সাথে জড়িত। ইতিপূর্বেও রোগীদের নানাভাবে হয়রানি, ছিনতাই ও বিশেষ

করে মহিলা রোগীদের নানাভাবে উত্যক্ত করার অভিযোগে একাধিকবার জেলে গেছে। আলোচিত স্কুল ছাত্রী অপহরণ ও গনধর্ষণ ঘটনায় উক্ত বাহিনীর লোকজন সম্পৃক্ত রয়েছে বলে বিভিন্ন মহল থেকে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। আটক আয়ুব খানকে গতকাল জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। সে স্থানীয় হাসপাতাল এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার মিজবাহ উদ্দিন আহমদ জানান, তিনি সবেমাত্র যোগদান করেছেন। এর মধ্যে এ ধরণের ন্যাক্কারজনক ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, এ ঘটনার রাতে কর্তব্যরতদের দায়িত্ব অবহেলা রয়েছে কিনা তা তদন্তের জন্য গঠিত কমিটি ৩দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেয়ার কথা থাকলেও কমিটি আজ রোববার পর্যন্ত সময় নিয়েছেন। আশা করছি- গঠিত তদন্ত কমিটি প্রকৃত ঘটনা তদন্ত করে দায়ীদের চিহ্নিত করতে সক্ষম হবে। কমিটির প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পাঠকের মতামত

ডেসটিনির পরিচালনা বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার প্রশান্ত

হাইকোর্টের নির্দেশে ডেসটিনি-২০০০ এর পরিচালনা বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান হয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার প্রশান্ত ভূষণ ...

বান্দরবানে কেএনএফের আস্তানায় যৌথ বাহিনীর অভিযান, নিহত ৩

বান্দরবানের রুমা উপজেলার রনিন পাড়ার কাছে ডেবাছড়া এলাকায় কেএনএফের একটি আস্তানায় সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে যৌথ বাহিনীর ...