প্রকাশিত: ০৬/০৪/২০১৭ ১০:৩৩ এএম

উখিয়া নিউজ ডেস্ক::
উখিয়া বালুখালীর নতুন রোহিঙ্গা বস্তিতে আধিপাত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, হামলা, ভাংচুর, লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এসময় উভয়পক্ষের মধ্যে ৬ জন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ আহত হয়েছে। আহতদের কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

উখিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলেও বস্তিতে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে বলে প্রত্যক্ষদর্শী রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন।

বালুখালী রোহিঙ্গা বস্তি ম্যানেজম্যান্ট কমিটির সভাপতি দাবিদার আনোয়ার হোসেন জানান, গত সোমবার সকালে কুতুপালং ক্যাম্পের ৪/৫ জন ও বালুখালী বস্তির ৫/৬ জন রোহিঙ্গা পার্শ্ববর্তী জঙ্গলে লাকড়ি আনতে গেলে স্থানীয় বনবিভাগের ভিলেজারের লোকেরা তাদের মারধর করে।

বালুখালী বস্তির রোহিঙ্গা নেতা খলিল মাঝির নেতৃত্বে আবুল ফয়েজ ও মোহাম্মদ ইউসুফ এ ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করে ৩০/৩৫ জন রোহিঙ্গা নিয়ে গত মঙ্গলবার সকাল ১০ টার দিকে রোহিঙ্গা বস্তি ম্যানেজম্যান্ট কমিটির সেক্রেটারীর বস্তির ঝুঁপড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। এসময় তারা নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, চাল ও নিত্য প্রয়োজনীয় মালামাল লুটপাট করে।

এসময় প্রতিপক্ষের লুটপাটে বাঁধা দিতে গিয়ে হারুন মাঝি(৩৫), তার স্ত্রী ছলেমা খাতুন (৩২), আনোয়ার হোসেন (৪০), মিজান বেগম (১৬) ও মিরানা বেগম (৮)সহ ৬ জন আহত হয়েছে।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের জানান, দু’টি পক্ষের মধ্যে আধিপাত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি থানা পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

পাঠকের মতামত

সোনার দামে আবারও রেকর্ড, ভ‌রি‌ ১ লাখ ১৯ হাজার ৬৩৮ টাকা

আবারও সোনার দাম বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে জুয়েলারি ব্যবসায়ীদের সংগঠন বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস)। প্রতি ভরিতে ...