বিজিবির সঙ্গে গোলাগুলিতে রোহিঙ্গা যুবক নিহত

টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের সঙ্গে গোলাগুলিতে অজ্ঞাত রোহিঙ্গা যুবক নিহত হয়েছে। শুক্রবার ভোর রাত ৪টার দিকে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমোরা মসজিদের পূর্বে পাশের নাফ নদীর পাড়ে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

এসময় ১ লাখ ৩০ হাজার পিস ইয়াবা ও একটি দেশীয় তৈরি এলজি বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে। বিজিবির দাবি, নিহত রোহিঙ্গা যুবক একজন ইয়াবা পাচারকারী।

টেকনাফ ২নং বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল খান সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, রাতে সীমান্তে টহল দেয়ার সময় দেখা যায় কয়েকজন লোক মাথায় বস্তা নিয়ে হেটে যাচ্ছিল। এসময় টহলরত বিজিবির সদস্যরা তাদের চ্যালেঞ্জ করলে তারা অতর্কিত বিজিবি সদস্যদের ওপর গুলি করে। এতে বিজিবির দুই সদস্য আহত হয়।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এসময় আত্মরক্ষার্থে বিজিবি সদস্যরাও পাল্টা গুলি করে। এক পর্যায়ে ইয়াবা পাচারকারিরা কেওড়া বাগানের দিকে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে আহত অবস্থায় একজনকে উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায় সে মিয়ানমারের নাগরিক এবং উখিয়ার থাইংখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বসবাস করে আসছে। তবে তার পরিচয় বিস্তারিত বলতে পারেননি।

তাকে দ্রুত প্রথমে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। এ ব্যাপারে টেকনাফ থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহত রোহিঙ্গা যুবকের বিস্তারিত পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন