ফেসবুকের সার্ভার ডাউন, জাকারবার্গের ক্ষতি ৮.৫ বিলিয়ন ডলার

mark-zuckerberg file
গত রাতে ইনস্টাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জার ও প্রধান ফেসবুক অ্যাপ কয়েক ঘণ্টা বন্ধ ছিল। এটাকে কোম্পানিটির ইতিহাসে সবচেয়ে বড় কারিগরি ব্যর্থতা হিসেবে অভিহিত করা হচ্ছে।

এতে বিশ্বব্যাপী কোটি কোটি মানুষ সমস্যায় পড়ে। তবে ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গও কম ক্ষতিগ্রস্ত হননি। মাত্র কয়েক ঘণ্টার জন্য পরিষেবাগুলো বন্ধ থাকায় তার ক্ষতি হয়েছে ৮.৫ বিলিয়ন ডলার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো বন্ধ হওয়ার সাথে সাথে এসব প্রতিষ্ঠানের শেয়ার বিক্রির হিড়িক পড়ে যায়। আর এতেই জাকারবার্গের বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতছাড়া হয়ে পড়ে।

ব্লুমবার্গ ইনডেক্সের তথ্যমতে, জাকারবার্গ এখন জাকারবার্গ এখন সবচেয়ে ধনীদের তালিকায় বিল গেটসের পেছনে গিয়ে পাঁচ নম্বরে নেমে গেছে। এখন তার নিট সম্পদের পরিমাণ ১২০.৯ বিলিয়ন ডলার। অথচ মধ্য সেপ্টেম্বরে তা ছিল ১৪০ বিলিয়ন ডলার।

ফেসবুকের মালিকানাধীন এই অ্যাপগুলোতে একই পরিকাঠামো ব্যবহার করা হয়। সোমবার রাতে তিনটি অ্যাপে বিভ্রাট শুরু হতেই ফেসবুকে একটি বার্তা দেখা যায়। তাতে লেখা, ‘দুঃখিত। কোনো কিছুতে বিভ্রাট ঘটেছে। যত দ্রুত সম্ভব, এই ত্রুটি দূর করার চেষ্টা করা হচ্ছে।’

অন্য দিকে, পরিষেবায় বিঘ্ন ঘটায় দুঃখপ্রকাশ করে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষও। টুইটারে তারা সেই সময়ে লেখেন, ‘এই মুহূর্তে বেশ কিছু মানুষের হোয়াটসঅ্যাপে যে বিপত্তি দেখা দিয়েছে, সে বিষয়ে আমরা অবগত। তবে আমরা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করছি। এ নিয়ে যত দ্রুত সম্ভব আপডেট দেয়া হবে।’

সোমবার রাতে একের পর এক অ্যাপের পরিষেবা বন্ধ হতেই টুইটারে তাদের ক্ষোভ উগরে দেন অগণিত ব্যবহারকারী। ওয়েব পরিষেবার গতিবিধি সম্পর্কিত খবরাখবর পরিবেশনকারী একটি ওয়েবসাইট ডাউনডিটেক্টর ডট কম জানিয়েছিল, শুধুমাত্র তাদের পোর্টালেই ২০ হাজার ব্যবহারকারী ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রাম নিয়ে অভিযোগ করেন।

সূত্র : গালফ টুডে ও অন্যান্য

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন