পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে চলছে নিরবতা!

ইমরান আল মাহমুদ,উখিয়া::
মুসলমানদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ইদুল ফিতরের অন্যান্য বছরের চেয়ে এবছর এক ব্যতিক্রমী ইদ উদযাপন করছে পুরো বিশ্ববাসী। করোনা ভাইরাসে নিঃস্তব্ধতার সাথে সময় কাটাচ্ছে পর্যটন কেন্দ্রগুলো। সারাদেশের ন্যায় কক্সবাজারের পাথুরে বীচ ইনানী অন্যান্য বছরগুলোতে পর্যটকে ভরপুর ছিলো।
কিন্তু করোনা ভাইরাস সবকিছু নিঃস্তব্ধ করে দিয়েছে। ফলে পর্যটন স্পটগুলোতে নেই কোনো কোলাহল।
সুনসান এসব পর্যটন কেন্দ্রগুলোর অবস্থা। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই পর্যটকদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন। ফলে স্থানীয় পর্যটকদের পর্যটন স্পটগুলোতে বেড়াতে না যেতে নেওয়া হয়েছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
তবে দীর্ঘদিন করোনা ভাইরাসজনিত কারণে পর্যটন মৌসুমে পর্যটকদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারির ফলে ক্ষতির মুখে পর্যটনের উপর নির্ভরশীল ব্যবসায়ীরা। অনেকের আয় রোজগার চলতো দৈনিক বিভিন্ন হকার ব্যবসা করে।
পর্যটক শূন্য হওয়াতে উখিয়া উপজেলার বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে নেই দেশি বিদেশি পর্যটকদের ভিড়। চলছে নীরবতা।
তবে একসময় আবারো ফিরে আসবে সেই দেশি বিদেশি পর্যটকদের সমাগমের চিত্র। ঘটবে প্রাণের সম্মিলন। এমনটাই প্রত্যাশা পর্যটন ব্যবসায়ীদের।

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন