প্রকাশিত: ১৮/১২/২০২১ ১০:০৬ পিএম , আপডেট: ১৯/১২/২০২১ ৯:১২ এএম


স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বিজয়ের মাস উপলক্ষে উখিয়া উপজেলা ও টেকনাফ উপজেলার স্নাতকধারীদের সংগঠন গ্রাজুয়েট, উখিয়া-টেকনাফ গ্রুপের উদ্যোগে গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা রফিকুল কবিরের সার্বিক নির্দেশনায় হাসিমুখ ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় ১৮ ডিসেম্বর ২০২১ইং তারিখে জালিয়াপালং ইউনিয়নের চোয়াংখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় “বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি ২০২১ইং”। এতে উক্ত বিদ্যালয়ের প্রায় ২৫০ জন শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবক ও এলাকাবাসীর রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করা হয়।

অত্র এলাকার ছাত্র মোহাম্মদ ইসমাইল হোসাইন জানান, উখিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চল চোয়াংখালী গ্রামে এই ধরণের কর্মসূচী প্রশংসার দাবিদার। মাত্র ২৫০ জনের রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করা হয়েছে যা এলাকায় উপস্থিত মানুষের চেয়ে অনেক কম। ভবিষ্যতে এই সংখ্যা বাড়ানোর জন্য আমি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কাছে অনুরোধ করছি।

হাসিমুখ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি মাহাবুব কাউছার জানান, রক্তের গ্রুপ জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। রক্তের গ্রুপ জানা থাকলে খুব দ্রুত একজন মানুষকে রক্তদানে সহযোগিতা করা সম্ভব। এই ধরণের কর্মসূচী অব্যাহত রাখলে একসময় শিশু থেকে বৃদ্ধ পর্যন্ত রক্তের গ্রুপ জেনে রাখতে পারবে। আমার সংগঠনের পক্ষ থেকে কারিগরী সহযোগিতা প্রদান করতে পেরে আমি গ্রাজুয়েট, উখিয়া-টেকনাফ গ্রুপকে আন্তরিক অভিবাদন জানাই।

গ্রাজুয়েট, উখিয়া-টেকনাফ গ্রুপের উদ্যোগে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচির আয়োজনে সংশ্লিষ্টজনকে ধন্যবাদ জানিয়ে চোয়াংখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিকাশ কান্তি বড়ুয়া জানান, ‘এটি নিঃসন্দেহে একটি প্রশংসনীয় মহতি উদ্যোগ। অত্র প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের সবার রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি দেখে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। এই কর্মসূচির জন্য গ্রাজুয়েট, উখিয়া-টেকনাফ গ্রুপ আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই। ভবিষ্যতে যেন এই ধরনের কর্মসূচি আরো বেশী বেশী হয় সেই কামনা করি।’

গ্রাজুয়েট, উখিয়া-টেকনাফ গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা রফিকুল কবির জনান- আমরা এতদিন অনলাইনে জনসচেতনতা মূলক অনেক কার্যক্রম সফলভাবে বাস্তবায়ন করেছি। এটিই আমাদের গ্রুপের পক্ষ থেকে মাঠ পর্যায়ের প্রথম কর্মসূচী। প্রথম কর্মসূচী বাস্তবায়নে যারা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সহযোগিতা করেছেন তাদের সবার প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। সবাই আমাদের ভবিষ্যৎ জনকল্যাণমূলক কর্মসূচী গুলোতে অংশগ্রহণ করে স্বতঃস্ফূর্তভাবে আরো বেশি সহযোগিতা করবেন এটাই প্রত্যাশা করি।

এই মানবতাবাদী কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন গ্রাজুয়েট, উখিয়া-টেকনাফ গ্রুপের মডারেটর মাহবুব নেওয়াজ মুন্না, সদস্য এমএ সাত্তার আজাদ, সদস্য শফিউল আমিন সহ আরো অনেকে। উক্ত কর্মসূচী পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে কাজ করেছেন মডারেটর রোমানা ইয়াছমিন পুতুল।

পাঠকের মতামত

কক্সবাজারের প্যাঁচারদ্বীপে পুড়িয়ে দেওয়া হলো বিশাল প্যারাবন

কক্সবাজারের প্রতিবেশ সংকটাপন্ন প্যাঁচারদ্বীপ সৈকতে প্যারাবন উজাড় ও দখল করে কিংশুক ফার্মস লিমিটেডের রিসোর্ট তৈরির ...

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসী হামলায় ভাই-বোন গুলিবিদ্ধ

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার নয়াপাড়া রেজিস্টার্ড রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসী হামলায় ক্যাম্পের ব্যবস্থাপনা কমিটির এক সদস্যের পরিবারের ...

রোহিঙ্গা ক্যাম্পের অগ্নিকাণ্ড ঠেকাতে ১২ সুপারিশের ভবিষ্যৎ কী?

উদিসা ইসলাম মার্চের শুরুতে কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির দেওয়া ...