প্রকাশিত: ১৯/০৯/২০১৭ ৯:১৪ এএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ১:২০ পিএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::

আরব আমিরাত মাঝে মধ্যেই কিছু প্রকল্প হাতে নিয়ে দুনিয়াকে তাক লাগিয়ে দেয়, তাতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। যেমন ধরা যাক, বিশ্বের সব থেকে উঁচু টাওয়ার বুর্জ খলিফা কিংবা পাম গাছের আকারে তৈরি আস্ত একটা দ্বীপ পাম জুমেইরা।

চোখ ধাঁধানো এইসব কীর্তির পর এবার আস্ত পাহাড় তৈরি করার চিন্তা-ভাবনা করছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। বৃষ্টি আনতেই নাকি এমন চিন্তা-ভাবনা শুরু হয়েছে।

দুবাইয়ের সংবাদপত্র ‘আরবিয়ান বিজনেস’-এ প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, দেশজুড়ে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বাড়াতে কৃত্রিম পাহাড় বানানোর পরিকল্পনা নিয়েছে আরব।

আর এই পরিকল্পনা নিয়ে গবেষণা চালাচ্ছে মার্কিন সংস্থা ‘ন্যাশনাল সেন্টার ফর অ্যাটমোসফেয়ারিক রিসার্চ’ (NCAR)

কী ধরনের পাহাড় তৈরি করলে, আবহাওয়ায় কী ধরনের প্রভাব পড়তে পারে, তা নিয়েই চলছে আলোচনা।

কতটা উঁচু হবে, কেমন ধরনের ঢাল থাকবে- সবটাই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। গবেষণার পর রিপোর্ট পেশ হবে, তার ভিত্তিতেই শুরু হবে পাহাড় তৈরির কাজ।

বৃষ্টিপাতের জন্য পাহাড় খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সাধারণত পাহাড়ের একটি ঢালে বৃষ্টি হয় ও অপরদিক শুকনো থাকে।

আরবে বৃষ্টি একটা বড় সমস্যা। গ্রীষ্মে খুব হাতে গোনা কয়েকদিনই বৃষ্টি হয়। এর ফলে বিভিন্ন জায়গায় ক্রমশ পানির সমস্যা তৈরি হতে শুরু করেছে।

গত কয়েক বছরে বৃষ্টির জন্য কৃত্রিম ব্যবস্থা করতে বিপুল পরিমাণ খরচ করা হয়েছে। কৃত্রিম মেঘ তৈরি করার ফলে গতবছর ২৪ ঘণ্টায় প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়, যা বন্যা পরিস্থিতি তৈরি করে।

এমনকি বিমান পর্যন্ত বাতিল করতে হয়। কিন্তু, পাহাড় তৈরি করলে পরিমিত বৃষ্টি হবে। ১.২ মাইল উচ্চতার পাহাড় তৈরি করতে মোটামুটিভাবে ২৩ হাজার কোটি ডলার খরচ হবে।

এছাড়া এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে ইতোমধ্যেই ৪ লাখ ডলার খরচ করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

পাঠকের মতামত

ইসরায়েলিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে মালদ্বীপ

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় আগ্রাসন চালানোর কারণে ইসরায়েলিদের প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছে মালদ্বীপ ...

মিয়ানমারে যুদ্ধে অংশ নিতে রোহিঙ্গাদের বাধ্য করছে সেনাবাহিনী

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অত্যাচার থেকে বাঁচতে রোহিঙ্গারা পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। এখন সেই সেনাবাহিনীর পক্ষেই লড়তে রোহিঙ্গাদের ...