ডেস্ক নিউজ
প্রকাশিত: ০৮/০৪/২০২৪ ১০:৪৬ এএম

বিভিন্ন রঙ ও জাতি এবং বিচিত্র ভাষা, কোনোকিছুই তাদেরকে মগ্ন করতে পরেনি। ইসলামের সৌন্দর্য সমস্ত মানুষকে এক করেছে। ২৭ রমজানের রাতে পবিত্র ভূমি মক্কার কাবা প্রাঙ্গণে জড়ো হন ২৫ লাখের বেশি মুসলিম। কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় কাবা প্রাঙ্গণ। মক্কা রূপ নেয় শুভ্র নগরীতে।

স্থানীয় মিডিয়াগুলো বরাত দিয়ে সিয়াসাত ডটকম জানিয়েছে, শুক্রবার ( ৫ এপ্রিল ) ২৭ রমজানের রাতের পবিত্র কাবা শরিফে হাজির হন ২৫ লাখের বেশি মুসলিম। লাইলাতুল কদরের সন্ধানে কাবা প্রাঙ্গণে প্রার্থনায় সমবেত হন তারা।

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লাখ লাখ মুসলিম ওমরাহ পালন করতে, ইশা, তারাবিহ এবং কিয়াম আল লাইলের নামাজ আদায় করতে কাবা প্রাঙ্গণে জড়ো হন। এদিনের নামাজ কাবা শরিফের প্রধান ইমাম আবদুল রহমান আল-সুদাইসের নেতৃত্বে বিশেষ দোয়ার মাধ্যমে শেষ হয়।

সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত ছবি ও ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, পবিত্র মসজিদুল হারাম প্রাঙ্গণ কানায় কানায় পূর্ণ। এই ভিড় কাবা প্রাঙ্গণ ছেড়ে মক্কার রাস্তায় পৌঁছে যায়।

সৌদি প্রেস এজেন্সি ( এসপিএ ) জানিয়েছে, সৌদি কর্তৃপক্ষ ওমরাহ পালনকারীদের কার্যক্রম শান্তিপূর্ণভাবে করতে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাস্তবায়ন করেছে। কাবা শরিফ ও মসজিদে নববিতে তাওয়াফের জায়গা প্রসারিত করা হয়েছে।

একাধিক ভাষায় অনুবাদ করা পবিত্র কোরআন বিতরণ করা হচ্ছে। এছাড়া বিশেষভাবে পরিচ্ছন্নতার দিকে নজর দেওয়া হচ্ছে।

শেখ সুদাইস দোয়া করেন, ‘হে আল্লাহ, ফিলিস্তিনে আমাদের ভাইদের বিজয় দান করুন এবং ইহুদি নিপীড়কদের দখল থেকে তাদের মুক্ত করুন। হে আল্লাহ, আল-আকসা মসজিদকে হানাদারদের আগ্রাসন থেকে রক্ষা করুন এবং মৃত্যুর আগে আমাদেরকে সেখানে প্রার্থনা করার তৌফিক দিন।’

লাখ লাখ মুসলিমের কান্নায় ভারী হয়ে ওঠে কাবার আকাশ। মহান সৃষ্টিকর্তার রহমতের প্রার্থণায় নিজেদের সপে দেন তারা।

পাঠকের মতামত

রাইসির টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে প্রচার হলো কোরআনের তিন আয়াত

ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টারের ধ্বংসাবশেষের সন্ধান মিলেছে দুর্ঘটনার প্রায় ১৬ ঘণ্টা পর। তবে ...