প্রকাশিত: ০৭/১১/২০১৭ ২:৩২ পিএম , আপডেট: ১৭/০৮/২০১৮ ১১:৩০ এএম

ডেস্ক রিপোর্ট::
হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় সোমবার সাবেক যুবরাজ মুকরিন বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের ছেলে মনসুর বিন মুকরিনের মৃত্যুর পর ২৪ ঘণ্টা না পেরোতেই আরেক সৌদি রাজপুত্রের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

৪৪ বছর বয়সী প্রিন্স আবদুল আজিজ ছিলেন বাদশাহ ফাহাদ বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের সবচেয়ে ছোট ছেলে।

সাবেক এফবিআই কর্মকর্তা আলী এইচ সুফান এক টুইটবার্তায় সোমবার প্রিন্স আবদুল আজিজের মৃত্যুর তথ্য জানান। এরপর আরও কয়েকটি ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট থেকে মৃত্যুর খবর প্রকাশ করলে এই খবর ছড়িয়ে পড়তে থাকে।

আলইতহাদ নিউজের বরাতে ইন্ডিয়া টুডে, এক্সপ্রেস ট্রিবিউন পাকিস্তান, পাকিস্তান টুডেসহ ভারত ও পাকিস্তানের কয়েকটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল এ বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে নবগঠিত এক দুর্নীতি দমন কমিটি দুর্নীতির দায়ে রোববার ১১ রাজপুত্র, ৪ বর্তমান মন্ত্রী এবং ২০-২৫ জন সাবেক মন্ত্রীকে আটক করে। পরে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রকাশিত প্রতিবেদনগুলোতে বলা হয়, আবদুল আজিজ গ্রেপ্তার হওয়া রাজপুত্রদের একজন। গ্রেপ্তার চেষ্টা ঠেকানোর জন্য হঠাৎ শুরু হওয়া বন্দুকযুদ্ধে তিনি আহত হন। এরপর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

কিছু সংবাদমাধ্যম আবার বলেছে, হাসপাতালে নেয়ার আগেই গোলাগুলিতে মারা যান তিনি।

সৌদির আল-মাসদার নিউজ নেটওয়ার্ক সবার আগে প্রিন্স আবদুল আজিজের মৃত্যু সংবাদ প্রকাশ করলেও কিছুক্ষণ পর সেটি সরিয়ে নেয়। দ্য দুরান নিউজ পোর্টাল অবশ্য বন্দুকযুদ্ধের কথা না বলে জানিয়েছে, গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলাকালে মৃত্যু হয় আবদুল আজিজের।

তবে এখন পর্যন্ত সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এসপিএ, রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেল বা সৌদিসহ মধ্যপ্রাচ্যের সুপরিচিত কোনো গণমাধ্যম আবদুল আজিজের মৃ্ত্যুর খবর প্রচার করেনি।

পাঠকের মতামত

ইসরায়েলিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে মালদ্বীপ

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় আগ্রাসন চালানোর কারণে ইসরায়েলিদের প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছে মালদ্বীপ ...

মিয়ানমারে যুদ্ধে অংশ নিতে রোহিঙ্গাদের বাধ্য করছে সেনাবাহিনী

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অত্যাচার থেকে বাঁচতে রোহিঙ্গারা পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। এখন সেই সেনাবাহিনীর পক্ষেই লড়তে রোহিঙ্গাদের ...